হ্যাপির আত্নহত্যার চেষ্টা

বৃহস্পতিবার, ১২ মার্চ ২০১৫

হ্যাপির  আত্নহত্যার চেষ্টা

 

Hataঢাকাঃ চিত্রনায়িকা নাজনীন আক্তার হ্যাপিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজধানীর একটি সরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বুধবার রাত ৯টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। এর আগে বুধবার রাত ৯টার দিকে হ্যাপি মিরপুরের বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। এ অবস্থায় তার পরিবার তাকে রাজধানীর পপুলারসহ তিনটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিলেও ওইসব হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাকে ভর্তি করতে অপারগতা প্রকাশ করে। পরে রাত ১০টার দিকে তাকে রাজধানীর একটি সরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।


 সেখানে সাত ঘণ্টা চিকিৎসা নেওয়ার পর আজ ভোর ৫টায় বাসায় ফেরেন হ্যাপি। এখনও তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ বলে পারিবারিকভাবে জানানো হয়েছে। সকালে ডাক্তার বাসায় এসে তাকে দেখে গেছেন বলে জানা যায়।

 ঘটনার আগে নাজনিন আক্তার হ্যাপী রুবেলের জন্য লিখেছিলেন, শেষ কথাও তোমাকে বলা হলো না। ঘটনার কিছুক্ষণ আগে ফেসবুক স্ট্যাটাসে হ্যাপি আরো লেখেন ‘আমি বড় দুর্ভাগা। শেষ কথাটাও তোমাকে বলতে পারলাম না। অনেক ভালবাসি বাবু, কোনো ভুল করলে মাফ করে দিও। আম্মু আব্বু তোমরাও মাফ করে দিও, আমি তোমাদের যোগ্য সন্তান হতে পারলাম না। আমার জন্য অনেক কষ্ট করেছ তোমরা। এর ঋণ শোধ করা সম্ভব না। এটাই আমার শেষ স্ট্যাটাস। বাবু তুমি অন্য কাউকে বিয়ে করবে এটা দেখা আমার পক্ষে সম্ভব হলো না।’ স্ট্যাটাস শেষে লিখেন, ফিলিং লস্ট।

জানা যায়, এর পর পরই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাজধানীর একটি সরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। বুধবার রাত ৯টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর পর্যন্ত তিনি ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। হ্যাপী মিরপুরের বাসায় অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে রাত ১০টার দিকে তাকে রাজধানীর একটি সরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সেখানে সাত ঘণ্টা চিকিৎসা নেন হ্যাপী । নেওয়ার পর আজ ভোর ৫টায় বাসায় ফেরেন হ্যাপি। এখনও তিনি শারীরিকভাবে অসুস্থ বলে পারিবারিকভাবে জানানো হয়েছে। হ্যাপী রাতে ত্রিশটা ঘুমের ট্যাবেলট খেয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন।

 

শনিবারের চিঠি /আটলান্টা /১২ মার্চ ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:৫৭ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১২ মার্চ ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com