সুস্থ হলেও দীর্ঘমেয়াদী জটিলতায় ভুগছেন করোনা আক্রান্তরা

শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০২০

সুস্থ হলেও দীর্ঘমেয়াদী জটিলতায় ভুগছেন করোনা আক্রান্তরা
প্রতিকী ছবি

করোনা আক্রান্ত হলে কিছুদিন পর মুক্তিও মিলছে। কিন্তু শরীরের ভেতরে রেখে যাচ্ছে এর রেশ। যা দীর্ঘমেয়াদে আক্রান্তদের শরীরে বড় ধরনের নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। ভুগতে হচ্ছে নানা শারীরিক জটিলতায়। যুক্তরাজ্যভিত্তিক ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব হেলথ রিসার্চ ইনস্টিটিউটের একদল গবেষক এমন তথ্য দিয়েছেন। খবর বিবিসি’র।

ওই গবেষকরা বলছেন, করোনায় সাধারণ আক্রান্তরা দুই সপ্তাহের মধ্যে সেরে উঠছেন। কিছুটা তীব্রভাবে আক্রান্তরা সেরে উঠছেন তিন সপ্তাহে। কিন্তু এই সুস্থ হওয়াটা আসলে পুরোপুরি সেরে যাওয়া নয়।


তারা বলছেন, সুস্থ হবার পরও অনেকে শরীরের শ্বাসযন্ত্র, হৃদযন্ত্র, ব্রেইন, কার্ডিওভাসকুলারজনিত সমস্যা যেমন, ত্বক, লিভার ও কিডনি জটিলতা তৈরি হচ্ছে।

ওই গবেষণায় দেখা গেছে, অনেকের স্থায়ীভাবে হৃদযন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। অল্পতেই শরীরে অবসাদ নেমে আসছে। কারো কারো ক্ষেত্রে সুস্থ হবার পরেও করোনার অনেক উপসর্গ দেখা দিচ্ছে।

গবেষকরা আরও বলছেন, কোভিডে আক্রান্তদের অনেকেরই লম্বা সময় ধরে শারীরিক দুর্বলতা থাকছে। অনেকেই হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে হয়তো বাসায় ফিরছেন। কিন্তু নানা শারীরিক জটিলতা তাদের কাবু করে ফেলছে।

গবেষণা দলের সদস্য অ্যালাইন ম্যাক্সওয়েল বিবিসিকে বলছেন, কোভিডে আক্রান্তদের মধ্যে যারা বেশি অসুস্থ হয়েছিলেন, পরবর্তীকালে তারাই বেশি শারীরিক জটিলতায় পড়ছেন।

তবে কোনো কোনো ক্ষেত্রে, উপসর্গহীন করোনা আক্রান্তরাও আইসিইউতে থাকা রোগীদের চেয়ে বেশি জটিলতায় ভুগছেন বলে গবেষকরা জানতে পেরেছেন।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ অক্টোবর ১, ২০২০

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৩:৪৭ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১৬ অক্টোবর ২০২০

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com