জেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে

সাংবাদিকের কাছে অর্থ দাবী ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ অশালীন আচরণকারী সেই ইউপি সচিবকে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ

শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

সাংবাদিকের কাছে অর্থ দাবী ও ঔদ্ধত্যপূর্ণ অশালীন আচরণকারী সেই ইউপি সচিবকে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ
আলোচিত সচিব  দেবাশীষ মল্লিক ছবিঃ সংগ্রহ

বাগেরহাটের কচুয়া সদর ও গোপালপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত আলোচিত সচিব  দেবাশীষ মল্লিককে অবশেষে বদলী করা হয়েছে। ২৩ সেপ্টেম্বর বুধবার বাগেরহাট জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মামুনুর রশীদ এ আদেশ দেন। তাকে কচুয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদ থেকে  জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নে পরিষদ বদলী করা হয়। সেপ্টেম্বরের ২৭ তারিখের মধ্যে উল্লেখিত ইউনিয়নে যোগ দিতে নির্দেশ  দেওয়া হয়েছে । বদলীকৃত কর্মস্থলে সেপ্টেম্বরের ২৭ মধ্যে যোগদান ব্যর্থ হলে ২৮ তারিখে তাকে চাকরি থেকে অবমুক্ত ঘোষণা করা হবে জেলা পরিষদের নির্দেশে উল্লেখ করা হয় ।

কচুয়া ইউনিয়নে নতুন যোগ দিবেন বর্তমানে মোরেলগঞ্জ ইউনিয়নে কর্মরত সচিব  শহিদুল ইসলাম মল্লিক । তিনি কচুয়া ইউনিয়নের পাশাপাশি গোপালপুর ইউনিয়ন পরিষদেও অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন ।


সচিব দেবাশীষ মল্লিকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ, অসদাচরণ, সরকারি সম্পদ আত্নসাৎ, গ্রাম পুলিশ ও সাংবাদিকদের  সাথে ঔদ্ধত্যপূর্ণ অশালীন আচরণ, প্রবাসী সাংবাদিকের কাছে ঘুষ দাবীর  অভিযোগ ওঠে। এ ব্যপারে কচুয়া সদর ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশগণ ও কচুয়া প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইদুজ্জামান সাইদ প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন । অভিযোগের পরিপেক্ষিতে কচুয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে   তদন্তের দায়িত্ব দেয় জেলা প্রশাসন ।  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার রিপোর্ট জমা দেওয়ার পরেই ইউপি সচিবকে বদলী করা হয় ।

—————————

আরো পড়ুনঃ বাগেরহাটে ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে  অনিয়ম ও অর্থ আত্নসাতের অভিযোগ

—————————

জানা যায়,কচুয়া প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সাংবাদিক সিকদার মনজিলুর রহমানের সাথেও অসৌজন্য মূলক আচরণ করেন  এই সচিব । বছরের গোড়ার দিকে তিনি  প্রবাস থেকে  দেশে এসেছিলেন । এ সময়ে তিনি কচুয়া ইউনিয়ন পরিষদে  তার  জন্ম নিবন্ধন সনদের ব্যাপারে খোঁজ খবর নিতে গিয়েছিলেন  । সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার পূর্বে  সনদপত্রের জন্য অর্থও  বাদী করেছিলেন  সচিব।

সচিব দেবাশীষ মল্লিকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাৎ, অসদাচরণ, সরকারি সম্পদ আত্নসাৎ, গ্রাম পুলিশ ও সাংবাদিকদের সাথে ঔদ্ধত্যপূর্ণআচরণ, প্রবাসী সাংবাদিকের কাছে ঘুষ দাবীর  অভিযোগে বিভিন্ন মহল থেকে প্রতিবাদ ও ইউপি সচিবের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবী উঠে। জেলা প্রশাসন থেকে আলোচিত ইউপি সচিবকে কচুয়া ইউপি থেকে বদলী  করায় এলাকাবাসীদের মধ্যে স্বস্থি ফিরে এসেছে এবং তারা  জেলা প্রশাসনকে ধন্যবাদ জানিয়েছে । অনেকে মন্তব্য করেছেন শুধু বদলী নয় এর চেয়ে কঠিন শাস্তি হওয়া উচিৎ ছিল।

শনিবারের চিঠি /  আটলান্টা / সেপ্টেম্বর ২৫,২০২০

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:১২ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com