শুধু অবহেলার কারণে এতগুলো মানুষ মরে গেল

শনিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

শুধু অবহেলার কারণে এতগুলো মানুষ মরে গেল
জনৈক ব্যক্তি গণমাধ্যমকে সাক্ষাৎকারে অভিযোগ করেন। দূর্ঘটনায় তার ভগ্নীপতি ও ভাগনে মারা গেছে

দীর্ঘ দিন থেকে গ্যাস লিকেজ হচ্ছিল মসজিদে, এ বিষয়টি ইমাম ও মুয়াজ্জিন মসজিদ কমিটিকে জানিয়েছিল। মসজিদ কমিটিও কোম্পানিকে জানিয়েছিল কিন্তু তারা কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। শুধু এই অবহেলার কারণে আজকে কতগুলো জীবন চলে গেলে। কতগুলো পরিবার পথে বসে গেল।

নিজের ভগ্নীপতি আরও ভাগিনার মৃত্যুর সংবাদ শুনে নারায়ণগঞ্জ থেকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ছুটে এসব অভিযোগ করেন এই স্বজন।


তিনি বলেন, ওই মসজিদের এই সমস্যা অনেক দিন ধরে ছিল। এই পাইপলাইন মসজিদের পাশেই ছিল সেটা লিক ছিল। এই বিষয়টি মসজিদ কমিটিকে জানানো হয়েছে মসজিদ কমিটিও কোম্পানিকে জানিয়েছিল কিন্তু তারা কোনও ব্যবস্থা নেয়নি। এটা অবহেলা ছিল, উনাদের বারবার বলার পরেও কোন পদক্ষেপ নেয়নি। আমরা এই বিষয়ে সরকারের হস্তক্ষেপ চাই।

এদিকে নারায়ণগঞ্জে বিস্ফোরণের ঘটনায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটে ছুটে আসেন নিহত ও আহতদের স্বজনরা। ধীরে ধীরে পরিবেশ ভারি হচ্ছে। একজন আরেকজনকে জড়িয়ে ধরে কাঁদছেন।

বিস্ফোরণে দগ্ধ পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীর পোশাক শ্রমিক মো. কেনান বার্ন ইউনিটের আইসিইউতে আছে। তার ছোট ভাই মো. ইমরান জানান, তার ভাই মসজিদে নামাজে পড়তে গিয়েছিল। বিস্ফোরণের খবর পেয়ে তিনি বাসা থেকে দৌড়ে যায়। পরে দগ্ধদের সবাইকে একেএকে হাসপাতালে নেয়া হয়।

প্রসঙ্গত, নারায়ণগঞ্জের তল্লায় মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় ৩৭ জন গুরুতর দগ্ধ হয়েছেন।  শনিবার দুপুরে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে জানা যায়। চিকিৎসাধীন সবার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

শনিবারের চিঠি /আটলান্টা/ সেপ্টেম্বর ০৫, ২০২০

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ | শনিবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com