রেহানার নাম ভাঙিয়ে অর্থ আত্নসাতের প্রচেষ্টায় রাজধানীতে এক মহিলা গ্রেফতার

রবিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৪

রেহানার নাম ভাঙিয়ে অর্থ আত্নসাতের প্রচেষ্টায় রাজধানীতে এক মহিলা গ্রেফতার

 

untitled

শেখ রেহানা

শনিবার রিপোর্টঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানা বলে পরিচয় দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনরকে ফোন করে অর্থ আত্মসাতের চেষ্টার অভিযোগে ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির এক নারী কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ওই নারীর নাম মারজিয়া জান্নাতি নূপা (৩১)। তিনি ইসলামী ইন্স্যুরেন্স লিমিটেডের সিনিয়র ম্যানেজার। এই প্রতারণায় যুক্ত থাকার অভিযোগে মারজিয়ার স্বামীকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। শনিবার রাজধানীর বনশ্রী এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।
দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-৩ এর অধিনায় লে. কর্নেল খন্দকার গোলাম সারোয়ার জানান, মারজিয়ার স্বামী এম এ কাশেম মজুমদার বিআইডব্লিউটির ঠিকাদার। আর্থিকভাবে সচ্ছল হওয়ার পরও তারা জালিয়াতির মাধ্যমে আরো ধনী হওয়ার পরিকল্পনা করেন। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে গত ৩০ নভেম্বর শেখ রেহানার পরিচয় দিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের গর্ভনরের অফিসিয়াল টেলিফোন নম্বরে ফোন করেন মারজিয়া। তিনি গভর্নরকে বলেন, ‘হ্যালো আমি শেখ রেহানা বলছি। প্রধানমন্ত্রীর বোন। একজন পঙ্গু পুরুষ ও প্রেগনেন্ট (অন্তঃসত্ত্বা) মহিলাকে আপনার কাছে পাঠাচ্ছি। তাদের কিছু আর্থিক সমস্যা আছে।’ ৩০ নভেম্বর এভাবেই বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ড. আতিউর রহমানকে ফোন করেন ইসলামী ইন্স্যুরেন্সের প্রধান কার্যালয়ের সিনিয়র ম্যানেজার মারজিয়া জান্নাতি নূপা (৩১)। ফোন করে তিনি বিভিন্ন ব্যাংকের বড় কিছু ইন্স্যুরেন্স পঙ্গু পুরুষ ও অন্তঃসত্ত্বা মহিলাকে দেয়ার নির্দেশ দেন। পরদিন বিকাল সাড়ে ৫টায় তার সঙ্গে সাক্ষাতের সময়ও নির্ধারণ করে দেন নূপা।
ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিতে যে যত বেশি ইন্স্যুরেন্স করাতে পারেন তিনি তত বেশি লাভবান হন। এ কারণেই মারজিয়া প্রতারণার মাধ্যমে বড় অঙ্কের ইন্স্যুরেন্সের প্রিমিয়াম আনার চেষ্টা করেন। এর মাধ্যমে মাসে কোটি টাকা রোজগারের পরিকল্পনা করেন তিনি।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, গভর্নর তাদের সাথে পরের দিন বিকেলে সাক্ষাতের সময় নির্ধারণ করেন। গভর্নরের সন্দেহ হলে তিনি তার ব্যক্তিগত সহকারীকে দিয়ে ওই নম্বরে ফোন করান। তখন ওই মহিলা নিজেকে সেতু বলে পরিচয় দেন এবং বাড্ডা এলাকায় বাস করেন বলে জানান।
ঘটনাটি জানতে পেরে র‌্যাব অনুসন্ধান শুরু করে। একপর্যায়ে র‌্যাব নিশ্চিত হয়, শেখ রেহানা পরিচয় দানকারী মহিলার নাম মারজিয়া। পরে র‌্যাব-৩ এর একটি দল মারজিয়া ও তার স্বামী কাশেম মজুমদারকে আটক করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে মারজিয়া কেন্দ্রীয় ব্যাংক গভর্নরের সাথে তার কথোপকথনের কথা স্বীকার করেছেন বলে জানান, র‌্যাবের কমান্ডিং অফিসার।
 


Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১১:৪০ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৪

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com