রাহুল গান্ধী গ্রেপ্তার

বৃহস্পতিবার, ০৮ জুন ২০১৭

রাহুল গান্ধী গ্রেপ্তার

এনডিটিভিঃ ভারতের মধ্যপ্রদেশ রাজ্যের মান্দসুরে বিক্ষোভে পুলিশের গুলিতে নিহত কৃষকদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পথে গ্রেপ্তার হয়েছেন বিরোধী দল কংগ্রেসের ভাইস প্রেসিডেন্ট রাহুল গান্ধী।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তারের পর অস্থায়ী কারাগার হিসেবে একটি গেস্টহাউসে রাখা হয় রাহুলকে।


মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ভুপেন্দ্র সিং বলেন, ‘সব ধরনের নিরাপত্তাব্যবস্থা ভাঙার চেষ্টা করেছেন রাহুল গান্ধী, যা ঠিক নয়। স্কুলছাত্রের মতো হেলমেট না পরে মোটরসাইকেলে চড়া একজন জাতীয় নেতার সঙ্গে যায় না।’

সকালে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, রাহুল গান্ধী ও কংগ্রেসের অন্য নেতাদের মান্দসুরে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

শস্যের দাম বাড়ানো ও ঋণ মওকুফের দাবিতে কয়েকদিন ধরে মান্দসুরে বিক্ষোভ করছেন কৃষকরা। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে রাজ্যে কারফিউ বলবৎ আছে। সেই বিক্ষোভের মধ্যে মঙ্গলবার গুলি চালায় পুলিশ। এতে পাঁচ কৃষক নিহত হন।

ঘটনার একদিন পর বুধবার সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে এক বার্তায় রাহুল জানান, তিনি নিহত কৃষকদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে চান। আর এ বিষয়টিকে নেতিবাচকভাবে দেখছে ক্ষমতাসীন দল ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। সংগঠনটির দাবি, রাহুল কৃষকদের বিক্ষোভকে কাজে লাগিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে চাচ্ছেন।

বিক্ষোভে উত্তাল সেই রাজ্য সফরে যাওয়ার পথে রাহুল সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী মোদি বিত্তশালীদের ছাড় দিয়েছেন। কিন্তু তিনি কৃষকদের ঋণ মওকুফ করতে পারছেন না।

এর আগে সকালে রাজস্থান রাজ্যের উদয়পুরে যান রাহুল। পরে সেখান থেকে তাঁকে বহনকারী গাড়িবহর রওনা দেয় ১৮০ কিলোমিটার দূরবর্তী মান্দসুরের দিকে। সীমান্তের কাছে গাড়ি আটকে দেওয়া হলে উপস্থিত নিরাপত্তাকর্মী, কংগ্রেস নেতাকর্মী, সাংবাদিক ও পুলিশ সদস্যদের ভিড়ের মধ্যেই একটি মোটরসাইকেলে চড়েন রাহুল। এরপর সীমান্ত থেকে মাত্র তিন কিলোমিটার দূরে আবার তাঁকে বাধা দেওয়া হয়। এরপর উপায়ান্তর না দেখে ত্বরিত গতিতে হাঁটা শুরু করেন কংগ্রেসের সহসভাপতি। এ সময় পুলিশের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা রাকেশ গুপ্তের সঙ্গে তাঁকে ধ্স্তাধস্তি করতে দেখা যায়। পুলিশি ব্যারিকেডের একপর্যায়ে মাঠ ধরে হাঁটতে থাকেন রাহুল। এর একপর্যায়ে তাঁকে গ্রেপ্তার করে একটি গেস্টহাউসে রাখা হয়।

শনিবারের চিঠি/ আটলান্টা / জুন ০৮, ২০১৭

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:৩৪ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৮ জুন ২০১৭

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com