রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা যাদের হাতে তারাই ধর্ষকদের পৃষ্ঠপোষক – জোনায়েদ সাকি

শুক্রবার, ২৯ মে ২০১৫

রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা যাদের হাতে তারাই ধর্ষকদের পৃষ্ঠপোষক – জোনায়েদ সাকি

 

ঢাকা: ধর্ষণ শুধু গায়ের জোরে হয় না। এর পেছনে আরো একটি ক্ষমতা রয়েছে, আর তা হলো রাজনৈতিক ক্ষমতা। যাদের হাতে রাষ্ট্রীয় ও রাজনৈতিক ক্ষমতা তারাই ধর্ষকদের পৃষ্টপোষকতা করেন।


শুক্রবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক প্রতিবাদী গণসমাবেশে এসব কথা বলেন গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি। সম্প্রতি রাজধানীর কুড়িলে এক তরুণীকে মাইক্রোবাসে তুলে নিয়ে ধর্ষণের ঘটনার প্রতিবাদে ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে এ গণসমাবেশের আয়োজন করে বাংলাদেশ গারো ছাত্র সংগঠন (বাগাছাস)।

সাকি আরো বলেন, ‘ক্ষমতায় যাওয়ার পর আমাদের সরকার আর জনগণের ওপর নির্ভরশীল থাকে না। তারা আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ও মাস্তান বাহিনীর ওপর নির্ভরশীল হয়ে যায়। আর এই সরকারের সময়ে পুলিশ বাহিনী বলে, আমাদের উপর ভর করে সরকার টিকে আছে। এটাতো আর বলার অপেক্ষা রাখে না যে, সরকার এখন পুলিশ বাহিনীর উপর দায়বদ্ধ। এর নাম স্বৈরতন্ত্র ফ্যাসিবাদ।’

বিএনপিকে উদ্দেশ করে সাকি বলেন, ‘বিএনপি যুদ্ধাপরাধীদের নিয়ে দল গঠন করায় জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় সরকার স্বৈরতান্ত্রিক ফ্যাসিবাদী ও বিএনপি দেউলিয়া।’

বিরোধীদল যেভাবে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে এমন পরিস্থিতিতে জানমাল রক্ষার্থে একটি নতুন রাজনৈতিক দলের উত্থান দরকার বলেও মনে করছেন সাকি।

আ স ম আব্দুর রব বলেন, ‘ধর্ষিতা গারো নয়, সে বাঙালি সন্তান। এক বছরে ১৮ হাজার নারী ধর্ষিত হয়েছে। দেশের পরিস্থিতি আজ এতটাই বিকৃত হয়ে গেছে। এই অবস্থা হবে আগে জানলে মুক্তিযুদ্ধ করতে যেতাম না।’

তিনি বলেন, ‘যারা ধর্ষণ করছে তাদের জন্য ফাঁসিই যথেষ্ট নয়, তাদের সোহরাওয়ার্দীতে লক্ষ কোটি জনগণের সামনে ফায়ার করে মারা উচিৎ। মানুষই ধর্ম সৃষ্টি করেছে তাই সবার আগে মানুষই সত্য।’

তিনি প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, ‘আপনি আদিবাসীদের প্যাগোডা, ঘর বাড়ি তুলে দিতে পারবেন। কিন্তু একজন নারীর সম্ভ্রম ফিরিয়ে দিতে পারবেন না।’

লাকী আকতার বলেছেন, ‘যেভাবে নারীর উপর নিপীড়ন পরিচালিত হচ্ছে সেজন্য সংগঠিতভাবে রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে আমাদের রাজপথে নামতে হবে। বর্ষবরনের নারী নির্যাতনের বিচার হয়নি বলে এক মাসে অনেক নারী নির্যাতন হয়েছে। আদিবাসী ও বেধর্মী নারীর উপর বেশি আগ্রাসন হয়। আর এই আগ্রাসন করে সরকারের পোষা নেতাকর্মীরা। তাইতো বিচার হয় না।’

তিনি আরো বলেন, ‘পুলিশদের গণস্বাক্ষর নিতে গেলে তারা গণস্বাক্ষর না দিয়ে উল্টো নারীর পোশাক নিয়ে প্রশ্ন তোলে।’

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ২৯ মে ২০১৫

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:১৬ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২৯ মে ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com