রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র সুন্দরবন ধ্বংসের পদক্ষেপ

রবিবার, ০৫ জুলাই ২০১৫

রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র সুন্দরবন ধ্বংসের পদক্ষেপ

 

খুলনা: সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল বলেছেন, ‘সুন্দরবন শুধু দেশের নয়, বিশ্বেরও সম্পদ। রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র এই সুন্দরবনকে ধ্বংস করার প্রায় চূড়ান্ত একটা পদক্ষেপ।’


শনিবার দুপুরে খুলনার উমেশচন্দ্র পাবলিক লাইব্রেরি মিলনায়তনে সুন্দরবন রক্ষায় কনভেনশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সুলতানা কামাল বলেন, ‘সুন্দরবনকে ক্ষত বিক্ষত করে বিদ্যুৎ প্রকল্প বাস্তবায়ন করার কোনো প্রয়োজন নেই। অথচ এই প্রকল্পের বিরুদ্ধে কথা বললে দেশপ্রেম নিয়ে প্রশ্ন তোলা হচ্ছে।’

মানবসৃষ্ট দুর্যোগ থেকে সুন্দরবনকে রক্ষার জন্য তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি, সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটি, বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি, খুলনা নাগরিক সমাজ, সুশাসনের জন্য নাগরিক, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন, মংলা নাগরিক সমাজ, ছাপাবৃক্ষ, সিপিডি, মংলা-ঘসিয়াখালী চ্যানেল রক্ষা কমিটি যৌথভাবে এই কনভেনশনের আয়োজন করে।

কনভেনশন উদ্বোধন করেন জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক প্রকৌশলী শেখ মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান ডিসিপ্লিনের অধ্যাপক ড. আবদুল্লাহ হারুন চৌধুরী। এছাড়া পরিবেশ আইনবিদ সমিতির বিভাগীয় সমন্বয়কারী মাহফুজুর রহমান মুকুল ‘সুন্দরবন-উন্নয়ন উদ্যোগ, সম্পদ আহরণে বিধ্বংসী কর্মকাণ্ড এবং প্রভাব বিশ্লেষণ’ শীর্ষক পৃথক একটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

কনভেনশন শেষে সুন্দরবন রক্ষায় চার দফা ঘোষণাপত্র পড়ে শোনান আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট বাবুল হাওলাদার।

ঘোষণাগুলো হচ্ছে, অবিলম্বে রামপাল বিদ্যু কেন্দ্রসহ সুন্দরবনের অভ্যন্তরের ও চারপাশের নির্মাণাধীন এবং পরিকল্পিত সব সরকারি-বেসরকারি প্রকল্প ও যেকোনো ধরনের স্থাপনা নির্মাণ বাতিল করতে হবে।

প্রকল্পগুলোর প্রয়োজনীয়তা জরুরী মনে হলে তাদের বন থেকে নিরাপদ দূরত্বে পরিবেশ বান্ধব ব্যবস্থায় স্থানান্তর করতে হবে।

সুন্দরবন রক্ষায় অবিলম্বে একটি পরিবেশ বান্ধব জাতীয় সুন্দরবন নীতিমালা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন করতে হবে। এছাড়া সুন্দনবন রক্ষায় দাবিগুলোর বাস্তবায়ন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আগামী ১২ সেপ্টেম্বর খুলনার শহীদ হাদিস পার্কে একটি সাংস্কৃতিক গণসমাবেশ করার ঘোষণা দেয়া হয়।

কনভেনশনে বিশেষজ্ঞের আলোচনা করেন সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব ডা. আবদুল মতিন, পানি বিশেষজ্ঞ প্রকৌশলী ম. এনামুল হক, সিডিপির নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ জাহাঙ্গীর হাসান মাসুম ও তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পাদক রক্ষা জাতীয় কমিটির সংগঠক সরদার রুহিন হোসেন প্রিন্স।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ ৫ জুলাই ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১০:১৮ পূর্বাহ্ণ | রবিবার, ০৫ জুলাই ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com