রাজাকার মাহিদুর ও চুটুর রায় কাল

মঙ্গলবার, ১৯ মে ২০১৫

রাজাকার মাহিদুর ও চুটুর রায় কাল

 

চাঁপাইনবাবগঞ্জঃ একাত্তরের মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় চাঁপাইনবাবগঞ্জের মাহিদুর রহমান ও আফসার হোসেন চুটুর রায়ের জন্য আগামীকাল (বুধবার) দিন নির্ধারণ করেছেন ট্রাইব্যুনাল।


মঙ্গলবার চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসানের নেতৃত্বে তিন সদস্যের আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ রায়ের জন্য এ দিন ধার্য করেন।

এর আগে ২২ এপ্রিল উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে এ মামলার রায় যে কোন দিন ঘোষণা করা হবে মর্মে আদেশ দেন ট্রাইব্যুনাল। তার আগে গত ২৭ জানুয়ারি থেকে ৭ এপ্রিল পর্যন্ত মাহিদুর ও আফসারের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা (আইও) জেডএম আলতাফুর রহমানসহ প্রসিকিউশনের মোট ১০ জন সাক্ষী। তবে মাহিদুর ও আফসারের পক্ষে কোনো সাফাই সাক্ষী ছিল না।

এর আগে মাহিদুর রহমান ও আফসার হোসেন চুটুর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে গত বছর ১ ডিসেম্বর আদেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল। তাদের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠানিক অভিযোগ গত ২৪ নভেম্বর আমলে নিয়েছে ট্রাইব্যুনাল। মাহিদুর রহমান ও আফসার হোসেন চুটুর বিরুদ্ধে গত ১৬ নভেম্বর আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দাখিল করে প্রসিকিউশন। ওইদিন তাদেরকে মানবতাবিরোধী অপরাধের এ মামলায় আটক দেখানোর জন্য প্রসিকিউশন আবেদন করেছিল। ২৪ নভেম্বর এ আবেদন মঞ্জুর করে ট্রাইব্যুনাল। তিনটি মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে মাহিদুর রহমান ও মো. আফসার হোসেন চুটুর বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়।

প্রসিকিউটর শাহীদুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, ‘ট্রাইব্যুনাল-২ আসামি মাহিদুর রহমান ও আফসার হোসেন চুটুর মামলাটির রায়ের জন্য দিন ধার্য করেছেন বুধবার। আসামিরা ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ থানার বিনোদপুর গ্রামের ৩৯ জনকে ধরে নিয়ে আসে। তাদেরকে বিনোদপুর হাইস্কুলে মুক্তিযুদ্ধ ক্যাম্পে নিয়ে নির্যাতন চালানো হয়। ১৯৭১ এর ৬ অক্টোবর আসামিরা পাক হানাদার বাহিনীর সাহায্য নিয়ে মুক্তিযুদ্ধের সমর্থনকারীদের ধরে নিয়ে এসে সেখানে নির্যাতন চালায় এবং হত্যা করে। বর্তমানে সেখানে একটি বধ্যভূমিও রয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এই মামলায় আমরা যেসব সাক্ষী উপস্থাপন করেছি তার মধ্যে অধিকাংশ একাত্তরের নির্যাতনের স্বীকার হয়েছিলেন। এর মধ্যে তিনজন সাক্ষী তাদের গুলিবিদ্ধ স্থান ট্রাইব্যুনালকে দেখিয়েছেন। এই মামলায় আমরা আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো প্রমাণ করতে সক্ষম হয়েছি। তাই আমরা আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড কামনা করছি।’

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ১৯ মে ২০১৫

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:০১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৯ মে ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com