যুক্তরাষ্ট্রে করোনা প্রতিরোধে প্রতিষেধক আবিষ্কার দাবি

মাত্র চার দিনেই সুস্থ

মঙ্গলবার, ১৯ মে ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা প্রতিরোধে প্রতিষেধক আবিষ্কার দাবি
করোনাভাইরাস, প্রতিকী ছবি।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের আতঙ্কে যখন গোটা বিশ্ব। বিশেষজ্ঞ বিজ্ঞানীরা প্রতিষেধক তৈরি নিয়ে যখন দিশেহারা, নিশ্চয়তা নেই এই ভাইরাস থেকে মুক্তির। এমন অবস্থায় বিশ্ববাসীর জন্য সুখবর নিয়ে এলো যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার সোরেন্টো থেরাপিউটিকস নামে একটি বায়োফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি। করোনা প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি বা প্রতিষেধক আবিষ্কার করেছে বলে দাবি করছেন তারা। খবর ফক্স নিউজের।

শুক্রবার কোম্পানির প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ডা. হেনরি জি জানান,  কোভিড-নাইনটিন  প্রতিরোধী অ্যান্টিবডি আবিষ্কার করেছেন তারা। এটি করোনা রোগীদের চিকিৎসায় শতভাগ কার্যকর। এমনকি অ্যান্টিবডিটি দেহে প্রয়োগ করা মাত্র চার দিনের মধ্যেই রোগী সুস্থ হয়ে যাবেন। আপনার শরীরে যদি আমাদের নিরপেক্ষ অ্যান্টিবডি থাকে তবে আপনার সামাজিক দূরত্বের দরকার নেই, আপনি নির্ভয়ে সমাজে চলতে পারবেন।


এই অ্যান্টিবডি নিয়ে প্রি-ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের পর সোরেন্টো থেরোপিউটিকস পরবর্তী কার্যক্রমে এগোচ্ছে। সংশ্লিষ্টরা ধারণা করছেন টিকা আবিষ্কার হবার কয়েক মাস পূর্বেই এই চিকিৎসা পাওয়া যাবে। সোরেন্টো থেরোপিউটিকসের কর্মকর্তারা বিশ্বাস করেন, করোনাভাইরাসের সফল চিকিৎসার চাবিকাঠি পেয়ে গেছেন তারা।

তাদের দাবি, গবেষণার অংশ হিসেবে তারা গত দশকে শত কোটি অ্যান্টিবডি সংগ্রহ করেছেন এবং সেগুলোর স্ক্রিনিংও করেছেন। এর মধ্যেই ডজনখানেকের মতো এমন অ্যান্টিবডি রয়েছে, যারা কার্যত করোনাভাইরাসকে মানুষের শরীরে শক্তভাবে বাসা বাঁধা ভাইরাস ঠেকিয়ে দিতে পারে।

সংক্রমণজনিত রোগের চিকিৎসায় অ্যান্টিবডির ব্যবহার শত বছর ধরে চলে আসছে। যদিও এর কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই গেছে। সেজন্য ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে সফল অ্যান্টিবডি বা করোনামুক্ত ব্যক্তির প্লাজমায় আক্রান্ত ব্যক্তির চিকিৎসা নতুন চ্যালেঞ্জে ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা করে আসছেন বিশেষজ্ঞরা।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ মে ১৯, ২০২০

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:৪৭ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৯ মে ২০২০

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com