রাফায়েল ওয়ারনোক ও জন ওসফের মধ্য দিয়ে

যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটও ডেমোক্র্যাটদের নিয়ন্ত্রণে

শুক্রবার, ০৮ জানুয়ারি ২০২১

যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটও ডেমোক্র্যাটদের নিয়ন্ত্রণে
রাফায়েল ওয়ারনোক ও জন ওসফ

জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে সিনেটের রানঅফে একদিন আগেই জয় পেয়েছিলেন ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী রাফায়েল ওয়ারনোক। তবে আরেক ডেমোক্র্যাট প্রার্থী ৩৩ বছর বয়সী জন ওসফের জয় তখনো নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছিল না। তিনি প্রতিদ্বন্দ্বী রিপাবলিকান দলের প্রার্থী ডেভিড পারডু থেকে সামান্য ব্যবধানে এগিয়ে ছিলেন। তবে শেষ পর্যন্ত সেই এগিয়ে থাকার ব্যবধানকে আরও বাড়িয়ে নিয়েছেন। শেষ হাসি হেসেছেন তিনি। একই সঙ্গে সিনেটের নিয়ন্ত্রণ রিপাবলিকানদের থেকে ছিনিয়ে নিল ডেমোক্র্যাটরা। ওয়াশিংটনে ৬ জানুয়ারি ডোনাল্ড ট্রাম্প সমর্থকদের তাণ্ডবের দিনে সুখবর পেল ডেমোক্র্যারা।

ডেমোক্রেটিক দলের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জয়ের হাসি আরও চওড়া হতেই পারে। কারণ, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়েছেন তিনি। কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রেখেছে তাঁর দল। তবে সিনেটে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে চরম অনিশ্চয়তা ছিল। দীর্ঘদিন ধরে সিনেট রিপাবলিকানদের দখলে। গত বছরের ৩ নভেম্বরের নির্বাচনের পর থেকে ট্রাম্পের নানা বিতর্কিত পদক্ষেপ আর বক্তব্যের পর যেন ডেমোক্র্যাটদের সামনে সিনেটের দরজা খুলতে থাকে। ১৯৩২ সালের পর ট্রাম্পই প্রথম প্রেসিডেন্ট, যিনি ক্ষমতা থাকাকালে পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ ও নিম্নকক্ষ দুই–ই হারাল দল।


জর্জিয়ায় সিনেটের দুটি আসনে রানঅফ নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী রাফায়েল ওয়ারনোক রিপাবলিকান প্রার্থী কেলি লফলারকে ৭৩ হাজার এবং আরেক প্রার্থী জন ওসোফ রিপাবলিকান প্রার্থী ডেভিড পারডুকে ৩৬ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন।

সর্বশেষ খবরে জানা যায়, হাড্ডাহাডি লড়াইয়ে ৫০ দশমিক ০৬ শতাংশ ভোট পেয়ে ডেমোক্র্যাট রাফায়েল ওয়ার্নোক বর্তমান সিনেটর কেলি লোফ্লারকে পরাজিত করেন। তাঁর প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা ২২ লাখ ৩০ হাজার ২৩১, তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী কেলি লোফ্লার পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ০৪ শতাংশ, যা সংখ্যায় ২১ লাখ ৭৬ হাজার ৪৮ ভোট।

অন্যদিকে জন ওসফ ৫০ দশমিক ০২ শতাংশ ভোট পেয়ে রিপাবলিকান প্রার্থী বর্তমান সিনেটর ডেভিড পারডুকে পরাজিত করেন। প্রাপ্ত ভোটের সংখ্যা ২২ লাখ ১১ হাজার ৬০৩। ডেভিড পারডু পেয়েছেন ৪৯ দশমিক ০৮ শতাংশ, যা সংখ্যায় ২১ লাখ ৯৪ হাজার ৫৭৮ ভোট।

২০০৯ সালের পর এই প্রথম নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ, সিনেট ও হোয়াইট হাউসের নিয়ন্ত্রণ যাচ্ছে ডেমোক্র্যাটদের হাতে। জর্জিয়ার হার ট্রাম্প শিবিরের জন্য বড় ধাক্কা হলেও পরাজয়ের জন্য প্রেসিডেন্টকেই দায়ী করছেন রিপাবলিকানরা।

এদিকে ডেমোক্র্যাট এই দুই প্রার্থী বিজয় প্রায় নিশ্চিত হওয়ার পর সিনেটের পরবর্তী সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা হতে চলছেন চাক শুমার। যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে, তবে তিনিই হবেন নিউইয়র্ক থেকে প্রথম সিনেট সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা। চাক শুমার ১৯৯৯ সাল থেকে সিনেটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এক বিবৃতিতে শুমার বলেন, ছয় বছর পর প্রথমবারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটে ডেমোক্র্যাটরা সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাচ্ছে এবং সেটি মার্কিন জনগণের জন্য খুব ভালো সংবাদ।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ জানুয়ারি ০৮, ২০২১

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৭:০১ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ০৮ জানুয়ারি ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com