যায় যায় দিনের গাড়িচালক ও মালিকে বোমাবাজির মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ

সোমবার, ১২ জানুয়ারি ২০১৫

যায় যায় দিনের গাড়িচালক ও মালিকে  বোমাবাজির মামলায়  ফাঁসানোর অভিযোগ

 

ঢাকাঃ দৈনিক যায় যায় দিনের গাড়িচালক মো. জনি ও মালি আল-আমিনকে মিথ্যা বোমাবাজির মামলায় ফাঁসানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।


জানা গেছে, গত শনিবার রাতে তেজগাঁও সাতরাস্তার মোড়ে এ দুই কর্মচারীকে বোমাবাজ বলে বেধড়ক পিটিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দিয় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ট্রাক শ্রমিকরা। একই সঙ্গে আটকে রাখা হয়েছে যায় যায় দিনের স্টাফ পরিবহনে ব্যবহৃত গাড়িটিও।

গাড়িচালক জনি জানান, শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে তিনি যায় যায় দিনের এক কর্মকর্তাকে আগারগাঁওয়ের বাসায় পৌঁছে দিয়ে কাওরানবাজার থেকে মেসের বাজার করে অফিসে ফিরছিলেন। মালি আল-আমিন এ সময় ওই গাড়িতে ছিলেন। গাড়িটি সাতরাস্তা মোড় অতিক্রম করার সময় কৃষক লীগের কর্মীরা সড়ক অবরোধ করে শোডাউন করছিলেন।

এ সময় তারা লাঠিশোটা নিয়ে তাদের গতিরোধ করলে চালক জনি গাড়ি নিয়ে দ্রুত সরে আসার চেষ্টা করেন। এ সময় তারা ধাওয়া করে গাড়িটি আটক করে এবং এলোপাতাড়িভাবে গাড়িটি ভাঙচুর করে। এর এক পর্যায়ে সশস্ত্র ক্যাডাররা চালক জনি ও মালি আল-আমিনকে টেনে হিচড়ে গাড়ি থেকে নামিয়ে বেধড়ক মারধর করে। পরে তারা গুরুতর জখম ওই দু’জনকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়।

এ সময় তারা অভিযোগ করে, ওই গাড়ি থেকে বোমা ছুঁড়ে মারা হয়েছে। খবর পেয়ে যায় যায় দিন পত্রিকার বেশ কয়েকজন সাংবাদিক দ্রুত থানায় ছুটে গেলে ওসি সালাউদ্দিন তাদের বিষয়টি সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করা হবে বলে আশ্বাস দেন। কিন্তু এর কিছুক্ষণ পরই জনি ও আল-আমিনের বিরুদ্ধে ভাঙচুর ও ককটেল বিস্ফোরণের মামলা দেয়া হয়।

পুলিশ জানায়, সাতরাস্তা ট্রাকস্ট্যান্ডের বেশ কয়েকজন পরিবহন শ্রমিক তাদের বোমা ছুড়ে মারতে দেখেছেন। তারা সাক্ষী হয়ে পুলিশকে মামলা রুজু করার জন্য চাপও দিয়েছেন। তাই সংবাদপত্রের গাড়িচালক ও মালির বিরুদ্ধে পুলিশ বাধ্য হয়েই মামলা নিয়েছে।

তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, কাশেম ড্রাইভার নামে যে ব্যক্তি ওই মামলার বাদী হয়েছেন তিনি ট্রাক স্ট্যান্ডের পেশাদার দালাল। তার সঙ্গে কৃষক লীগের কয়েকজন নেতাও নিজেদেরকে ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী হিসেবে জাহির করেছেন। সুত্রঃ বাংলা মেইল

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৯:৪৫ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ১২ জানুয়ারি ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com