যশোর বোর্ডে ভুলে ভরা ৮শ’ শিক্ষার্থীর নিবন্ধনপত্র

বৃহস্পতিবার, ১৯ মার্চ ২০১৫

যশোর বোর্ডে ভুলে ভরা ৮শ’ শিক্ষার্থীর নিবন্ধনপত্র

 

 


যশোর: যশোর শিক্ষা বোর্ডে চলছে এইচএসসি পরীক্ষার ফরম পূরণ ও নিবন্ধন কার্যক্রম। ইতোমধ্যে বোর্ডের কম্পিউটার শাখা থেকে বিভিন্ন কলেজে ভুলে ভরা ৮শ’ শিক্ষার্থীর নিবন্ধনপত্র দেয়া হয়েছে। এগুলো সংশোধন করতে দূর দূরান্ত থেকে শিক্ষকদের বোর্ডে ধর্না দিতে হচ্ছে।

কলেজ শিক্ষকদের অভিযোগ, শিক্ষা বোর্ডের কম্পিউটার শাখায় রেজিস্ট্রেশন কাজ সঠিকভাবে করা হয় না। ফলে নিবন্ধন কার্ডে ছাত্রের পরিবর্তে ছাত্রীর ছবি, নামে ও বিষয়ে ভুল ছাপা হয়। আবার অনেক নিবন্ধনে শিক্ষার্থীর নাম বাদ পড়েছে।

এ ধরণের অভিযোগ বুধবার যশোর শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের কাছে সরাসরি দাখিল করেন ফকিরহাট ফজিলাতুন্নেছা মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ বৈদ্যনাথ হালদার। তিনি জানান, তার কলেজে খুলনার পাইওনিয়ার কলেজ থেকে ছাড়পত্র নিয়ে সুতি রায় নামে এক ছাত্রী ভর্তি হয়। ফজিলাতুন্নেছা মহিলা কলেজ থেকে ফরম পূরণ করলেও ওই ছাত্রীর নাম নিবন্ধন তালিকা থেকে বাদ পড়েছে। কিন্তু পাইওনিয়ার কলেজের তালিকায় সুতি রায় নামে ছাত্রীর নাম ছাপা হয়েছে।

কুষ্টিয়ার আমেনা খাতুন কলেজের প্রধান অফিস সহকারী পিযুষ কান্তি জানান, তার কলেজের ছাত্র বিধান বিশ্বাসের নিবন্ধনে ছাপা হয় সন্ধ্যা বিশ্বাস নামে ছাত্রীর ছবি। সেটি সংশোধন করতে কষ্ট করে বোর্ডের কম্পিউটার শাখায় আসতে হয়েছে।

কম্পিউটার শাখায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সেখান থেকে এইচএসসি পরীক্ষার ৮শ’ নিবন্ধন পত্রে ভুল হয়েছে। কম্পিউটার শাখার সিনিয়র কম্পিউটার এনালিস্ট জাহাঙ্গীর কবির বলেন, শিক্ষকদের কারণে এ ভুল হচ্ছে। পরে কথা পরিবর্তন করে বলেন, অনেক কাজ করতে গেলে ভুল তো হতেই পারে।

এ ব্যাপারে শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র জানান, সচেতন হলে ভুল সংশোধন করা সম্ভব। এ জন্য সম্মিলিতভাবে সকলকে কাজে আন্তরিক হতে হবে। তবে এ বিষয়ে অফিসের কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনায় বসবো।

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা /১৮ মার্চ ২০১৫

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:৪০ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৯ মার্চ ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com