মোদীর বাংলাদেশ সফর: বিএনপি-র প্রস্তাবে আওয়ামী লীগ সরকারের ‘না’

রবিবার, ৩১ মে ২০১৫

মোদীর বাংলাদেশ সফর: বিএনপি-র প্রস্তাবে আওয়ামী লীগ সরকারের ‘না’

 

মীর সাব্বির বিবিসি বাংলাঃ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আসন্ন বাংলাদেশের সফরের আগে বিএনপির পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার মধ্যকার একটি বৈঠকের আহ্বানকে নাকচ করে দিয়েছে সরকার।


বিএনপি বলছে, মোদীর সফরের আগে তারা বিভিন্ন জাতীয় ইস্যুতে ঐক্যমত্য তৈরির জন্য এ বৈঠকের আহ্বান করেছে। তবে সরকার বলছে, এধরণের কোন বৈঠকে তারা আগ্রহী নয়।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বাংলাদেশ সফরে আসছেন আগামি ৬ জুন।

এ সফরের আনুষ্ঠানিক আলোচ্যসূচী এখনো ঘোষণা করা না হলেও, দুই দেশের মধ্যকার বেশ কিছু অমীমাংসিত ইস্যু আলোচনায় আসতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মোদীর সফরে ছিটমহল বিনিময়ে স্থল-সীমান্ত চুক্তি স্বাক্ষরের সম্ভাবনা খুবই বেশি, আলোচনায় আসতে পারে তিস্তা নদীর পানি চুক্তিসহ দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য এবং যোগাযোগের বিষয়।

বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান রিপন বলছেন, এসব ইস্যু নিয়ে মি: মোদীর সাথে আলোচনার আগে একটি ঐক্যমত্য তৈরির জন্যই তারা প্রধানমন্ত্রীর সাথে তাদের চেয়ারপার্সনের একটি বৈঠক আশা করছেন।

“সরকার যাতে ইস্যুটি এমনভাবে উপস্থাপন করতে পারে যে এসব ইস্যুর প্রতি দল-মত নির্বিশেষে সকলের সমর্থন আছে,” তিনি বলেন।

তবে এধরণের কোন বৈঠকের সম্ভাবনা নাকচ করে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম।

তিনি বলছেন, বিষয়টি নিয়ে তারা সংসদে বিরোধী দলের সাথে আলোচনা করতে পারেন, তবে বিএনপির সাথে আলোচনা করতে আগ্রহী নন।

“আমার মনে হয় না এটিকে বিশেষ কোন গুরুত্ব দেয়ার কারণ আছে। আমরা বসলে সংসদে বিরোধী দল জাতীয় পার্টির সাথে বসতে পারি,” তিনি বলেন।

এসব ইস্যুতে তারা কোন ভিন্নমত তুলে ধরতে চান কিনা জানতে চাইলে আসাদুজ্জামান রিপন বলেন, ভিন্নমত নয়, বরং জাতীয় ঐক্যমত্য প্রতিষ্ঠা করাই তাদের লক্ষ্য।

বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়া: মোদীর সফর নিয়ে আলোচনা চাইছেন।

বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়া: মোদীর সফর নিয়ে আলোচনা চাইছেন।

টি ইমাম বলেন, বিএনপি সবসময়ই ভারতের বিরোধিতা করে এসেছে, এবং তাদের কারণে ভারতের সাথে সম্পর্কও খারাপ হয়েছে।

বিএনপির বিরুদ্ধে ভারত বিরোধিতার অভিযোগের বিষয়ে বিএনপি নেতা আসাদুজ্জামান রিপন বলছেন, তাদের অবস্থান কখনোই ভারতের বিরুদ্ধে ছিল না, বরং তারা দেশের স্বার্থেই কথা বলেছেন।

শুক্রবার একটি সংবাদ সম্মেলন করে ভারতের সাথে বিভিন্ন অমীমাংসিত ইস্যুতে শেখ হাসিনা এবং খালেদা জিয়ার মধ্যে একটি বৈঠকের আহ্বান জানায় বিএনপি। গতকাল তারা বলছেন, এনিয়ে লিখিতভাবে কোন প্রস্তাব দেয়ার পরিকল্পনা তাদের নেই।

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ ৩১ মে ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৪:৫৮ অপরাহ্ণ | রবিবার, ৩১ মে ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com