মুরাদ কান্ডে উত্তাল কোর্টপাড়াঃ ঢাকা, খুলনাসহ বিভিন্নস্থানে মামলা

সোমবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০২১

মুরাদ কান্ডে উত্তাল কোর্টপাড়াঃ ঢাকা, খুলনাসহ বিভিন্নস্থানে  মামলা
প্রতিকী ছবি

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদ হারানো  আওয়ামী এমপি মোহাম্মদ  মুরাদ হাসানের বিরুদ্ধে দেশের ৫ জেলায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার আবেদন করা হয়েছে। জেলাগুলো হলো ঢাকা, খুলনা, বরিশাল, রাজশাহী, চট্টগ্রাম ও সিলেট । এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে ইউটিউবার মহিউদ্দিন হেলাল নাহিদকেও।

বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও যুক্তরাজ্যে পলাতক সাজাপ্রাপ্ত আসামি তারেক রহমানের মেয়ে জাইমা রহমান সম্পর্কে ফেসবুক লাইভে কুরুচিপূর্ণ, অশ্লীল বক্তব্যের অভিযোগ তোলা হয়েছে এসব আবেদনে।


১২ ডিসেম্বর রোববার সকালে মুরাদ ও নাহিদের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন হয়েছে ঢাকা ও রাজশাহীতে। একাধিকবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি জানানোর পর এবার সেই আইনেই মামলার আবেদন করেছে বিএনপি।

বরিশালঃ আজ ১৩ ডিসেম্বর (সোমবার) বেলা সাড়ে ১১টায় বরিশাল জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক মো. আবুল কালাম আজাদ বাদী হয়ে বরিশালের সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলাটি দায়ের করেন।

বরিশাল সাইবার ট্রাইব্যুনালের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট ইশতাক আহমেদ জানান, মামলাটি আমলে নিয়েছেন আদালত। তবে এখনো কোনো আদেশ দেননি।

আদালতে মামলা করার সময় বাদী মো. আবুল কালাম আজাদের সঙ্গে বিএনপি নেতা অ্যাড. আলী হায়দার বাবুল, অ্যাড. মহসবন মন্টু, অ্যাড. এনায়েত হোসেন বাচ্চু, অ্যাড. আজাদ হোসেন, অ্যাড. হুমায়ুন কবির মাসুদ, অ্যাড. আবুল কালাম আজাদ, অ্যাড. হারুন অর রশিদ সহ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বাদী আবুল কালাম আজাদ বলেন, মুহাম্মদ মহিউদ্দিন হেলালের ভার্চুয়াল টকশো’তে অংশ নিয়ে ডা. মুরাদ হাসান ব্যারিস্টার জাইমা রহমান সম্পর্কে অশ্লীল ও শিষ্টাচার বহির্ভূত বক্তব্য দিয়েছেন, তাই তিনি মামলাটি দায়ের করলেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করলেও কোনও আদেশ দেননি। পরবর্তীতে আদালত এ ব্যাপারে আদেশ দেবেন।

ঢাকাঃ ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার আবেদন করেন ঢাকা বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক ফারুকী।

মামলার আবেদনে গ্রহণযোগ্য উপাদান না পাওয়ায় সোমবার ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেন তা খারিজের আদেশ দেন। সোমবার দুপুরে তার শুনানি নিয়ে বিচারক খারিজ করে দেন বলে গণমধ্যমকে জানান আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার।

খুলনাঃ  খুলনায় সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম খুলনা সাধারণ সম্পাদক মোল্লা গোলাম মওলা।

এই ফোরামের কেন্দ্রীয় আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আনিসুর রহমান খান বলেন, শনিবার আমরা খুলনা সদর থানায় মামলা করতে গিয়েছিলাম। থানা থেকে আমাদের জানানো হয় এ মামলা গ্রহণের এখতিয়ার তাদের নেই। সেখান থেকে আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। আদালত মামলার আবেদন গ্রহণ করেছেন। মঙ্গলবার শুনানির দিন ধার্য করেছেন।

রাজশাহীঃ রাজশাহীতে সাইবার ট্রাইব্যুনালে মামলার আবেদন হয় রোববার বেলা সাড়ে ১১টায়। বগুড়া আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক সাইফুল ইসলাম এই আবেদন করেন। রাজশাহীর সাইবার ট্রাইব্যুনালের রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ইসমত আরা জানান, আদালতের বিচারক জিয়াউর রহমান মামলার বিষয়ে পরে আদেশ জানাবেন।

একই দিন দুপুরে চট্টগ্রামে বিভাগীয় সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনালের বিচারক এস কে এম তোফায়েল হাসানের আদালতে আবেদন করেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম চট্টগ্রাম ইউনিটের সভাপতি এ এস এম বদরুল আনোয়ার।

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদ হারানো  আওয়ামী এমপি মোহাম্মদ  মুরাদ হাসান [ পুরনো ছবি ]

এনামুল হক বলেন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে জিয়া পরিবারকে নিয়ে অশ্লীল ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য এবং জাইমা রহমানসহ নারীসমাজকে নিয়ে মানহানিকর ও অপমানজনক মন্তব্যের অভিযোগে মামলার আবেদন করা হয়েছে। মামলার শুনানি হয়েছে, আদালত এটি আদেশের জন্য রেখেছেন।

সিলেটঃ সিলেটের সাইবার ট্রাইব্যুনালে দুপুরে মুরাদ ও নাহিদের বিরুদ্ধে মামলার আবেদন করেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম সিলেটের সাংগঠনিক সম্পাদক তানভীর আক্তার খান। বিচারক আবুল কাশেম আবেদনটি গ্রহণ করে আগামী ১৫ ডিসেম্বর শুনানির তারিখ নির্ধারণ করেছেন।

জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও বিএনপি নেতা এটিএম ফয়েজ উদ্দিন বলেন, আদালত মামলার এজাহার গ্রহণ করে ১৫ ডিসেম্বর আদেশের তারিখ নির্ধারণ করেছেন। মামলায় মুরাদ ছাড়াও নাহিদ রেইনসকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। নাহিদ রেইনস হলো মহিউদ্দিন হেলাল নাহিদের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের আইডি।

ফয়েজ বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের ২৫, ২৯, ৩১ ও ৩৫ ধারায় মামলার আবেদন হয়েছে। আমরা আশা করছি, আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে আসামিদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যু করবেন।

বিভিন্ন টকশো ও অনুষ্ঠানে নানা বিষয়ে বিতর্কিত মন্তব্য ও ঢাকাই সিনেমার এক নায়িকার সঙ্গে অডিও ফাঁসের ঘটনায় ডা. মুরাদকে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করতে বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরে তিনি পদত্যাগ করেন। একই সঙ্গে জামালপুর আওয়ামী লীগের পদ হারান।

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১২:১৪ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com