মুজিব বর্ষ উপলক্ষে লক্ষ্মীপুরে মঞ্চস্থ হলো নাটক ‘সে রাতের গল্প’

শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

মুজিব বর্ষ উপলক্ষে লক্ষ্মীপুরে মঞ্চস্থ হলো নাটক ‘সে রাতের গল্প’
অনুষ্ঠান আয়োজকবৃন্দের একাংশ [ ছবিঃ সংগৃহীত ]

মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে মঞ্চস্থ হলো ‘সে রাতের গল্প’ নামের একটি নাটক। লক্ষ্মীপুর শিল্পকলা একাডেমির পক্ষ থেকে ৪ আগষ্ট শনিবার সন্ধ্যায় স্থানীয় টাউন হল মিলনায়তনে এ নাটকটি মঞ্চায়িত হয়। নাট্য চর্চাকে গতিশীল করতে ৬৪ জেলায় বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নাটক নির্মাণের এ আয়োজন উপভোগ করেন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

নাট্য নির্দেশনায় ছিলেন প্রফেসর মাইন উদ্দিন পাঠান। রচনায় ছিলেন অপু মেহেদী। অভিনয় করেন জেলা শিল্পকলা একাডেমি রেপাটরি নাট্যদল।


নাটকটির কাহিনী যেভাবে শুরু হয়, সুদুর ফরিদপুরের সুরশ্বর গ্রামে বাস করেন রতন মাঝি। একাত্তরের ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শুনতে একবার ঢাকা আসেন। এরপর ৭৫ এর ১৪ আগষ্ট সন্ধ্যায় ২য় বার ঢাকা শহরে আসেন রতন মাঝি। উদ্দেশ্য ছিল একটাই স্বপ্নের নায়ককে কাছ থেকে দেখা, পা ছুঁয়ে সালাম করা। তাই সারাদিন নৌকা বেয়ে সদরঘাটে পৌঁছায়। তার একটুখানি জমিতে করা ধান থেকে চিড়া করে বঙ্গবন্ধুর জন্য সবটাই নিয়ে আসে মাঝি। বৈঠা হাতে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর বাড়ীতে যাওয়ার পথে পুলিশি বাঁধার সম্মুখীন হয়। কাল ১৫ আগষ্ট। সকালে বঙ্গবন্ধু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে আসবেন। দ্বিতীয় বিপ্লবের কর্মসূচি ঘোষণা করবেন তিনি। সেখানে বঙ্গবন্ধুকে বরণের প্রস্তুতি চলছে। তাই সিকিউরিটি প্রশ্নে হাইকোর্টের গেইটের কাছে রতন মাঝিকে পুলিশি বাধার সম্মুখীন হতে হয়।

এসময় সহজ সরল এ মানুষটি বাধা অতিক্রম করতে সরল-সাহসী উচ্চারণে বিদ্রোহ করে গ্রেফতার হয়। রাতে জেল-হাজতে দুঃস্বপ্ন দেখে। কয়েকজন আলখেল্লাধারী মানুষ তার গলা চেপে ধরে। হঠাৎ চিৎকার দিয়ে জেগে উঠে রতন মাঝি। পরদিন সকালে পুলিশের কাছে জানতে পারেন তার নেতা আর নেই। তাঁর কাছের মানুষরা তাকে হত্যা করে। পুলিশ রতন মাঝিকে ছেড়ে দেয়। সে উম্মাদ হয়ে পড়ে। বুকফাটা আর্তনাদ করে উঠে। চিৎকার করে জানতে চায় দ্যাশে কি কোন মানুষ নাই! দ্যাশে কি কোন পুরুষ নাই! সেদিন লক্ষ কোটি রতন মাঝি ছিল। ছিল না পুরুষ! এভাবেই দর্শকদের চোখের পানিতে শেষ হয় নাটকটি।

নাট্য নির্দেশক মাইন উদ্দিন পাঠান বলেন, সে রাতের গল্প নাটকটিতে বঙ্গবন্ধুর প্রতি মানুষের মমত্ববোধ, ভালোবাসা, শ্রদ্ধা ও আবেগকে তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে। এই দেশ, জেলাবাসী, নতুন করে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ও দর্শনকে জানতে পারবে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  মোঃ আনোয়ার হোছাইন আকন্দ, জেলা প্রশাসক ও  জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, লক্ষ্মীপুর, ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান পিপিএম সেবা, পুলিশ সুপার, লক্ষ্মীপুর, মোহাম্মদ মাসুম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সদর, লক্ষ্মীপুর। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন  মোহাম্মদ নুর এ আলম, অতিরিক্ত  জেলা প্রশাসক (সার্বিক), লক্ষ্মীপুর।

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com