ভার্জিনিয়ায় রোজাদার মুসলিম তরুণী খুন

মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০১৭

ভার্জিনিয়ায় রোজাদার মুসলিম তরুণী খুন

অনলাইন ডেস্কঃ  যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়ায় রোজাদার মুসলিম তরুণী অপহরণ ও খুন হুয়েছে। স্থানীয় সময় গত রবিবার ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফেক্স নগরের দুলাস এলাকায় সেহরি খাবের পর নাবরা হুসেন  নামের  ঐ তরুনী নিখোঁজ  হয়।। পরদিন সোমবার পার্শ্ববর্তী একটি ডোবা থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করে স্থানীয় পুলিশ। খুনের সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে  ডারউইন মার্টিনেজ টরেস  নামক এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

ডারউইন মার্টিনেজ টরেস নামক এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

অভিযুক্ত ডারউইন মার্টিনেজ টরেস

সোমবার ভার্জিনিয়া পুলিশ জানায়, গতকাল রবিবার ভোর রাতে ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফেক্স নগরের দুলাস এলাকায় মুসলিম সোসাইটির মসজিদ থেকে নাবরাসহ ৪ বা ৫ বান্ধবী  সেহরি খেয়ে বন্ধুদের সঙ্গে ঘরে ফিরছিলেন ১৭ বছরের নাবরা  হুসেন। কিন্তু নাবরা আর ঘরে ফেরেনি। চব্বিশ ঘন্টা খোঁজাখুঁজির পর সোমবার সকালে স্থানীয় একটি ডোবা থেকে পুলিশ নাবরার লাশ উদ্ধার করেন। তিনি ভার্জিনিয়ার ফেয়ারফ্যাক্স কাউন্টির বাসিন্দা বলে জানা গেছে। ঘটনার সঠিক কারন এখনো জানা যায়নি। তবে তবে নাবারার মা, সাওসান গাজার, ওয়াশিংটন পোষ্টে বলেছিলেন: “আমি মনে করি সে যেভাবে সজ্জিত ছিল এবং তার সাথে মুসলমানদের সম্পর্ক ছিল।” এটি একটি জাতি বিদ্বেষ ধারণা করা হচ্ছে ।


রাস্তা পার হচ্ছে নাবরা হূসেন ছবিঃ ভার্জিয়া পুলিশ

রাস্তা পার হচ্ছে নাবরা  হুসেন ছবিঃ ভার্জিনিয়া পুলিশ

জানা গেছে রবিবার মসজিদে যাওয়ার পথে ডারউইন মার্র্টিনেজ নামে ২২ বছর বয়সী এক যুবকের সঙ্গে বাকবিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েছিলেন ওই তরুণী। নাবরাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকিও দিয়েছিল ওই যুবক। তরুণী নিখোঁজ থাকার খবরে তাই প্রথমে ডারউইনের ওপরেই সন্দেহ হয় পুলিশের।

স্থানীয়দের বর্ণনা মতো ডারউইনের একটি স্কেচ আঁকে ভার্জিনিয়া পুলিশ। সোমবার স্থানীয় একটি ক্লাব থেকে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। জেরায় নাবরাকে খুনের কথা স্বীকার করেছে সে। ঠিক কী কারণে সে নারাকে খুন করেছে, তা জানার চেষ্টা করছে পুলিশ। আগামি ১৯ জুলাই নাবরা হুসেনের খুনের শুনানির দিন ধার্য্য করেছে আদালত। ঐদিন ডারউইন মার্র্টিনেজকেও হাজির করা হবে।সুত্রঃ ডেইলি মিরর

শনিবারের চিঠি /আটলান্টা / ২০ জুন, ২০১৭

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৫:১৬ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২০ জুন ২০১৭

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com