ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় জর্জিয়ায় শ্যামা পুজা উদযাপন

বুধবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৪

ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় জর্জিয়ায় শ্যামা পুজা উদযাপন

Kali_Puja_03শনিবার রিপোর্টঃ  গতকাল  ২৫ অক্টোবর এবং এর আগের দিন ২৪ অক্টোবর  ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় বর্ণাঢ্য আয়োজনে জর্জিয়ায়  হিন্দু সম্প্রদায়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব শ্যামা বা কালী পুজা উদযাপিত হয়েছে।

হিন্দু সম্প্রদায়ের শ্যামা বা কালীপূজা উৎসবের প্রথমে সন্ধ্যায়  প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্যদিয়ে প্রয়াত পিতা-মাতা ও আত্মীয়স্বজনের আত্মার শান্তি কামনা করেন। স্বামী-সন্তান ও স্বজনরা যাতে সুষ্ঠু ও সুন্দর থাকতে পারে সেই কল্যাণ কামনায় শ্রীশ্রী শ্যামা মায়ের কাছে প্রার্থনার আয়োজন করা হয়। এরপর ভক্তিমূলক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও রাতে শ্যামাপূজা অনুষ্ঠিত হয়। এ উপলক্ষে জর্জিয়া প্রবাসী  হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় সংগঠন জর্জিয়া বাংলাদেশ পুজা সমিতি ও বাংলাদেশ পুজা এ্যাসোসিয়েসন বিপিএ স্থানীয় জেসি ইভেন্ট হলে পৃথক পৃথক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।


২৪ অক্টোবর শুত্রবার সন্ধ্যায় জর্জিয়া বাংলাদেশ পুজা সমিতির সভাপতি রজত শুভ্র দে বাবুল ও সাধারণ সম্পাদক রমেশ সাহার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও সংগঠনের অন্যান্য যারা উপস্থিত ছিলেন মনশ্রী দে জবা, শ্রীমতি মৌ, নিশিকান্ত দাস, রনদা প্রসাদ চৌধুরি, ধ্রুব ধর, সজল মুনি দে, সুকুমার সরকা্‌ শশাংক দাস প্রমুখ। পুরোহিতের কর্তব্য পালন করেন বাবু সুভাষ চক্রবর্তী।  অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করে ভারতীয় আইডল রাকা দাস এবং স্থানীয়দের মধ্যে সোমা দাস, মনশ্রী দে, পুরবী সুত্রধর, সুমিতা দেসহ আরো অনেকে।

২৫ অক্টোবর সিগ্ধা দে ও শ্যাম চন্দর পরিচালনায় বাংলাদেশ পুজা এ্যাসোসিয়েসন বিপিএ এর অনুষ্ঠান সঙ্গীত পরিবেশন করে তৃপ্তি চক্রবর্তী এবং স্থানীয় শিল্পীবৃন্দ। পুরোহিতের কর্তব্য পালন করেন শ্রী কাজল চত্রবর্তী।

যদিও হিন্দুসম্প্রদায়ের অনুষ্ঠান দেখা গেছে জর্জিয়া প্রবাসী প্রচুর সংখ্যক  মুসলমান নর-নারি এ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছে।

দুর্গাপূজার বিজয়ার পরবর্তী অমাবস্যার রাতেই এ পুজার  আয়োজন করা হয়। পৃথিবীর সকল অন্ধকারের অমানিশা দূর করতেই এই আয়োজন। কেউ কেউ এ উৎসবকে দেওয়ালী উৎসব বলে থাকেন বিশেষ করে ভারতীয়রা।হিন্দু ধর্মে বিশ্বাস  ত্রেতা যুগে চৌদ্দ বছর বনবাস থাকার পর নবমীতে শ্রীরাম রাবণ বধের বিজয় আনন্দ নিয়ে দশমীতে অযোধ্যায় ফিরে আসেন। রামের আগমন বার্তা শুনে সমস্ত প্রজাকুল তাদের গৃহে প্রদীপ জ্বালিয়ে আনন্দ উৎসব পালন করেন। এই উৎসবকে দীপাবলি উৎসবও বলা হয়।

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৯:৩৩ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৪

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com