বীরেনের মা মারা গেছেন

বুধবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৫

বীরেনের মা মারা গেছেন

pirojpurপিরোজপুরঃ মাকে পূজা করার মাধ্যমে দিন শুরু হতো বীরেনের। এরপর মাকে গোসল করিয়ে, খাইয়ে দিয়ে নিজে দিনের প্রথম আহার মুখে তুলতেন। এভাবেই চলছিল প্রায় ৫০ বছর ধরে । সেই মা ঊষা রানী মজুমদার গত সোমবার ৭ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় না ফেরার দেশে চলে গেছেন। মৃত্যুর সময় উষা রানীর বয়স হয়েছিল ১১৩ বছর।
নিয়তির অমোঘ টানে ছিন্ন হলো মা-ছেলের বন্ধন। তবে মাকে হারালেও ভেঙে পড়েননি বীরেন। তার বিশ্বাস, দেহত্যাগ করলেও মা তার সঙ্গেই থাকবেন। মায়ের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়াও নিজে হাতে সেরেছেন তিনি। মায়ের প্রতি অসীম ভালোবাসা থেকেই ঘরের সামনেই মায়ের শেষকৃত্যের আয়োজন করেন তিনি। বীরেনের বড় ভাইয়ের স্ত্রী আরতী রানী বলেন, ‘হঠাৎ করে প্রচণ্ড জ্বর হয়েছিল শাশুড়ির। মোটরসাইকেলে করে শহরের ডাক্তারও নিয়ে এসেছিলেন বীরেন। কিন্তু তাঁকে আর বাঁচানো গেল না।’ উষা রানীর বাড়ি পিরোজপুরের জিয়ানগর উপজেলার পূর্ব চণ্ডীপুর গ্রামে। ১৯ বছর আগে স্বামীর মৃত্যুর পর থেকেই হাঁটাচলা করতে পারতেন না তিনি। আর বাবার মৃত্যুর অনেক আগে থেকেই মায়ের দেখাশোনা করতেন বীরেন। চিরকুমার বীরেনের পুরো নাম বীরেন্দ্রনাথ মজুমদার। বয়স ৫৪-তে পড়েছে। মায়ের সেবায় ত্রুটি হতে পারে এই দুশ্চিন্তা থেকে বিয়েই করেননি তিনি।
শনিবারের চিঠি/ আটলান্টা/ ০৯ ডিসেম্বর ২০১৫

Facebook Comments Box


বাংলাদেশ সময়: ১০:২৪ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com