বিভক্তির রাজনীতি নিয়ে ফখরুলের হতাশা

বৃহস্পতিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

বিভক্তির রাজনীতি নিয়ে ফখরুলের হতাশা

রাজনীতিবিভক্তির রাজনীতি নিয়ে হতাশা প্রকাশ করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দেশে বিভক্তির রাজনীতির অবসান ঘটিয়ে জাতীয় ঐক্য সৃষ্টি করতে সবার প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘দেশে বিভক্তির রাজনীতি সমাজের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ছে। এই বিভক্তির ফলে উন্নয়নের পরিবর্তে দেশ অন্ধকার গহ্বরের দিকে যাচ্ছে।’

বুধবার বিকেলে রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ পুত্র প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক স্মরণ সভায় তিনি এ কথা বলেন। ‘ক্রিকেট অঙ্গন’ এর আয়োজন করে।


মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশে এই মুহূর্তে বিভক্তির রাজনীতির যে সংস্কৃতি শুরু হয়েয়ে, তা ভয়াবহ পর্যায়ে পৌঁছেছে। ক্রীড়াঙ্গনসহ সমাজের সকলস্তরে, এমনকি ব্যক্তিক পর্যায়েও এই বিভক্তি ছড়িয়ে পড়েছে। এই বিভক্তি দেশকে সামনে এগিয়ে নিতে দেবে না। উন্নয়নের জন্য ঐক্য দরকার। সেজন্য বিএনপি বারবার জাতীয় ঐক্যের কথা বলছে।’ দেশের বর্তমান পরিস্থিতিকে ‘শাসরুদ্ধকর’ হিসেবেও অভিহিত করেন বিএনপির এই ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব।

বাংলাদেশের ক্রিকেটে আরাফাত রহমান কোকোর অবদান তুলে ধরে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান হয়েও তিনি রাজনীতিবিমুখ ছিলেন। ক্রিকেটই ছিল তার ধ্যানজ্ঞান। তিন বীর মুক্তিযোদ্ধার নামে তিনি দেশে তিনটি স্টেডিয়াম করার উদ্যোগ নিয়েছিলেন। আজ তাদের পরিবারকে পাকিস্তানপন্থি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়, এটি দুর্ভাগ্যজনক। অথচ তার বাবা মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা দিয়েছিলেন, মা নয় মাস গণতন্ত্রের জন্য সংগ্রাম করেছেন, যুদ্ধের সময়ে পাকিস্তানিদের হাতে বন্দি ছিলেন।’

‘যিনি ক্রিকেটের জন্য এতো কিছু করেছেন তার মৃত্যুর পর ক্রিকেট বোর্ড থেকে একটি শোকবাণীও দেয়া হয়নি। অথচ তাকে স্মরণ করে একটি অনুষ্ঠানও তারা করতে পারতো। এতে তার অবদানকে স্বীকার করা হতো। দুর্ভাগ্য, আজ উল্টো একজন সত্যিকারের ক্রীড়া সংগঠনের স্ত্রী এবং তার সন্তানদের নামে মামলা দেয়া হচ্ছে’, বলেন মির্জা ফখরুল।

অনুষ্ঠানে আরাফাত রহমান কোকোকে ‘আধুনিক ক্রিকেটের অন্যতম রূপকার’ আখ্যা দিয়ে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের ক্রিকেটকে একটি পেশাদার পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার অর্গামোনগ্রামের উদ্যোগ তিনিই প্রথম নিয়েছিলেন। ক্রিকেটকে রাজনীতির ঊর্ধ্বে উঠিয়ে খেলাটির উন্নয়নের কাজ করে গেছেন কোকো।

স্মরণ সভায় ক্রিকেট বোর্ডের গেম ডেভেলোপমেন্ট কমিটির প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক জামিল উদ্দিন, প্রাক্তন ক্রিকেটার রফিকুল ইসলাম বাবু, প্রাক্তন নির্বাচক তানজিদ আহমেদ, ক্রীড়া সংগঠক মো. মোজাফফর, জাতীয় দলের প্রাক্তন ক্রিকেটার মো. সেলিম, জাতীয় ফুটবল দলের প্রাক্তন অধিনায়ক আমিনুল হক, দৈনিক যুগান্তরের জ্যেষ্ঠ ক্রীড়া প্রতিবেদক মোজাম্মেল হক চঞ্চল, এনটিভির ক্রীড়া সম্পাদক এসএম নাছিমুল হাসান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১১:৫২ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com