বিএনপি জোচ্চর এবং মিথ্যাবাদীর দল

সোমবার, ১২ জানুয়ারি ২০১৫

বিএনপি জোচ্চর এবং মিথ্যাবাদীর দল

 

শনিবার রিপোর্ট; বিএনপি মিথ্যাচার করে গোটা জাতিকে অপমানিত করেছে বলে অভিযোগ করে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি জোচ্চর এবং মিথ্যাবাদীর দল।


রোববার বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে তিনি এ অভিযোগ করেন। বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আওয়ামী লীগ এ জনসমাবেশের আয়োজন করেছে।

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ টেলিফোনে বিএনপি চেয়ারপারসনের কথপোকথনের প্রসঙ্গ ও ছয় মার্কিন কংগ্রেস ম্যানের স্বাক্ষরিত বিবৃতি মিথ্যা দাবি করেন হানিফ বলেন, ‘আজকে আরেকবার প্রমাণিত হল বিএনপি বিদেশিদের নিয়েও মিথ্যাচার করেছে। বিজেপির সভাপতি অমিত শাহের টেলিফোন এবং ৬ জন কংগ্রেসম্যানের স্বাক্ষর জাল করে যে প্রেস রিলিজ দেয়া হয়েছিল তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে বিএনপি গোটা জাতিকে অপমানিত করেছে।’

হানিফ বলেন, ‘দুভার্গ্যজনক হলোও সত্য বিএনপি-জামায়াত রাজনৈতিক ভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। তাদের উপর দেশের মানুষের জনসমর্থন নেই। তারা আর একবার প্রমাণ করল, এই দেশের মানুষকে বাদ দিয়ে বিদেশিদের উপর নির্ভরশীল হয়ে থাকার জন্য ছলচাতুরির আশ্রয় নিচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা বাঙ্গালি বীরের জাতি, যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনক আজকে কংগ্রেসের তরফ থেকে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে। ভবিষ্যতে যদি এ ধরনের কর্মকাণ্ড হয় তাহলে এ বিষয়ে অবশ্যই কঠোর পদক্ষেপ নিদে বাধ্য হবো। সবচেয়ে লজ্জাজনক হলো যাদেরকে কেন্দ্র করে মিথ্যাচার করেছে সেই ব্যক্তিরাই বলছে তাদের সঙ্গে কোনো কথা হয় নাই।’

হানিফ বলেন, ‘বিএনপির যদি নূন্যতম কাণ্ডজ্ঞান, লজ্জাবোধ থাকত তাহলে তারা এ বিষয়ে কোনো কথা বলত না। তাদের উচিত ছিল লজ্জায় জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া। আমাদের ভুল হয়ে গেছে, ভুলের জন্য ক্ষমা চাই।’

‘গত ৪ জানুয়ারি থেকে ডিএমপির রাজধানীতে সভা-সমাবেশের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এখনো তা বলবৎ আছে, তাহলে কি আগামীকাল আপনাদের জনসভা হবে কিংবা জনসভার অনুমতি পেয়েছেন কি না?’ এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সবসময় আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, তারা আইন অমান্য করে কোন কাজ করে না, করবেও না। অনুমতি নিয়েই আমরা জনসভা করবো।’

‘আগামীকাল বিএনপিও জনসভা আহ্বান করলে আপনারা কি করবেন এমন প্রশ্নের জবাবে হানিফ বলেন, ‘বিএনপির মাথার মধ্যে কি আছে সেটা নিয়ে গবেষণা করার দরকার নেই। তাদের গবেষণা তাদেরই করতে দেন। তারা যদি কিছু করে তারপর আমাদের জিজ্ঞাসা করবেন।’

উল্লেখ যে আগামীকাল ১২ জানুয়ারি বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে এক জনসভার আয়োজন করেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। এ উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সভাস্থলের সার্বিক কর্মকাণ্ড সরেজমিনে পরিদর্শনে দেখতে যান নেতারা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ, উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, কার্যনির্বাহী সদস্য এনামুল হক শামীম, আমিনুল ইসলাম আমিন, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পঙ্গজ দেবনাথ প্রমুখ। সুত্রঃবাংলামেইল২৪ডটকম

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১০:১৯ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ১২ জানুয়ারি ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com