বান কি মুনের চিঠির জবাব দিয়েছেন দুই নেত্রী

সোমবার, ০২ মার্চ ২০১৫

বান কি মুনের চিঠির জবাব দিয়েছেন দুই নেত্রী

 

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন

ঢাকাঃ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালানো কোনো দলের সঙ্গে সরকার সংলাপে বসবে না বলে জাতিসংঘ মহাসচিবকে জানিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত সপ্তাহের শেষে যথাযথ প্রক্রিয়ায় বাংলাদেশ থেকে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের কাছে পাঠানো চিঠিতে এ কথা জানান তিনি। এদিকে জাতিসংঘ মহাসচিবের দেওয়া চিঠির জবাবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া জানিয়েছেন, তার দল সংলাপ চাইলেও সরকার তাতে আগ্রহ দেখাচ্ছে না। একই সঙ্গে চলমান আন্দোলনকালে যেসব সহিংসতার ঘটনা ঘটছে সেগুলোর জন্য ক্ষমতাসীনদের দায়ী করা হয়েছে বিএনপি চেয়ারপারসনের চিঠিতে। সংশ্লিষ্ট একাধিক দায়িত্বশীল সূত্রে এ তথ্য পাওয়া গেছে। 


 সূত্র জানায়, প্রধানমন্ত্রীর চিঠিতে বিএনপি-জামায়াত জোটের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের পুরো খতিয়ান তুলে ধরা হয়েছে। শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক কর্মসূচি পালনের সুযোগ নেই বলে বিএনপির অভিযোগের জবাবও চিঠিতে তথ্যপ্রমাণসহ তুলে ধরা হয়েছে। এতে বলা হয়, বিএনপি বছরজুড়েই মিছিল, সমাবেশসহ সব ধরনের রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করেছে। এখনও তাদের শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক কর্মসূচি পালনে কোনো বাধা নেই

বে তাদের কর্মসূচি জনসমর্থন না পাওয়ার কারণেই বছর শেষে তারা সহিংসতার পথ বেছে নেয়, যেমনটা তারা ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন বন্ধের জন্যও করেছিল। এর ফলে নিরীহ মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। বর্তমান সরকার সব সময়ই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স দেখিয়েছে। এ নীতি থেকেই সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে এমন কোনো দল বা জোটের সঙ্গে সংলাপ করবে না সরকার। চিঠিতে সহিংসতা বন্ধে জাতিসংঘের আহ্বানের জন্য বান কি মুনকে ধন্যবাদও জানানো হয়।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. এ কে এম আবদুল মোমেন গতকাল শনিবার টেলিফোনে সমকালকে বলেন, জাতিসংঘ মহাসচিব প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছিলেন। সে চিঠির জবাব প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মাধ্যমে সরাসরি পাঠানোর কথা। জাতিসংঘ স্থায়ী মিশনে এ সংক্রান্ত কোনো তথ্য নেই। তবে তিনি বলেন, স্থায়ী মিশন থেকে নিয়মিতভাবেই বাংলাদেশের পরিস্থিতি সংশ্লিষ্টদের জানানো হচ্ছে। সন্ত্রাসী কার্যকলাপ যারা করে, তাদের সঙ্গে সরকার সংলাপ করবে না, এ বিষয়টিও আগেই স্থায়ী মিশন জাতিসংঘকে জানিয়েছে। সহিংসতা জাতিসংঘও সমর্থন করে না এবং সন্ত্রাসী কার্যকলাপ বন্ধে জাতিসংঘের আহ্বানও রয়েছে।

 চলমান পরিস্থিতিতে উদ্বেগ এবং সংলাপের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণ সমাধানের আহ্বান জানিয়ে গত ৩০ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে চিঠি দেন জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি চিঠিটি প্রধানমন্ত্রী এবং বিএনপি চেয়ারপারসনের হাতে পৌঁছে।

বিরোধী জোট সংলাপ চায়, সরকারের আগ্রহ নেই- বিএনপি: বিএনপি চেয়ারপারসনের চিঠির জবাব ঢাকায় জাতিসংঘ আবাসিক প্রতিনিধির কার্যালয়ে পৌঁছে দেন দলের স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য। সেখান থেকে নিউইয়র্কে জাতিসংঘ মহাসচিবের কাছে ওই চিঠি পৌঁছেছে বলে বিএনপির একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। জানা গেছে, সংলাপের মাধ্যমে সংকট সমাধানে বিএনপির আগ্রহের বিষয়টি চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে। সরকার সংলাপ-সমঝোতার পরিবর্তে শক্তি প্রয়োগের নীতি প্রয়োগ করছে বলেও এতে তুলে ধরা হয়। একই সঙ্গে চলমান আন্দোলন সম্পর্কে বিভ্রান্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে সরকারই সহিংসতা ও নাশকতার ঘটনা ঘটিয়ে বিএনপির ওপর দায় চাপাচ্ছে বলেও অভিযোগ করা হয় চিঠিতে।

এদিকে এ বিষয়ে জানতে বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান শনিবারের চিঠিকে বলেন, জাতিসংঘ মহাসচিবের চিঠির জবাব দেওয়া হয়েছে বলে তার জানা নেই। তিনি বলেন, বান কি মুনের চিঠির জবাব দেওয়ার কিছু আছে বলে মনে করি না। সংলাপের সব উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিএনপির পক্ষ থেকে বিবৃতি দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া শান্তির পক্ষে এবং সহিংসতা ও নাশকতার বিরুদ্ধে বিএনপি প্রতিদিনই বিবৃতি দিয়ে যাচ্ছে।

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১০:২৮ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ০২ মার্চ ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com