বান্ধবীকে ধর্ষণের অভিযোগে নিউইয়র্কে আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার

রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯

বান্ধবীকে ধর্ষণের অভিযোগে নিউইয়র্কে  আওয়ামী লীগ নেতা গ্রেপ্তার
অভিযুক্ত লুৎফর রহমান হিমু ছবিঃ ইন্টারনেট

ধর্ষণ মামলার  অভিযোগে  লুৎফর রহমান হিমুকে (৩১)নামে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে  গ্রেপ্তার করেছে নিউইয়র্ক পুলিশ। রবিবার পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। ১৩ জানুয়ারি কুইন্স ক্রিমিনাল কোর্টে হাজিরার তারিখ দিয়ে স্থানীয় আদালত তাকে সোমবার জামিন (সুপারভাইজ রিলিজ) দিয়েছে বলে জানান ডিস্ট্রিক্ট অ্যাটর্নির কমিউনিকেশন্স ডাইরেক্টর ইকিমুলিসা লিভিংস্টন।

লুৎফর রহমান হিমু ফিলাডেলফিয়ায় বসবাস করেন এবং পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। ধর্ষণের অভিযোগ আনা ওই নারী হিমুর বান্ধবী বলে দাবি করেন তিনি। তবে ধর্ষণের অভিযোগ সত্য নয় বলে দাবি তার।


মামলার বিবরণে বলা হয়, রবিবার ভোর রাতে কুইন্সে ১৪৪-১৫ লিবার্টি অ্যাভিনিউতে অবস্থিত কমফোর্ট ইন হোটেলে ৩৪ বছর বয়সী এক নারীকে ধর্ষণসহ শারীরিক নির্যাতন করেছেন হিমু। দুই সন্তানের জননী ওই নারী পেশায় একজন ব্যাংক কর্মকর্তা।

তবে ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে হিমু বলেন, “সে আমার বেস্ট ফ্রেন্ড। তার সঙ্গে আমার সম্পর্কের কথা ওর পরিবারের সবাই জানে। ফিলাডেলফিয়ায় আমার বাসায়ও গেছে সে। তার দুই সন্তানের সঙ্গেও আমার সুসম্পর্ক রয়েছে।

নিজেদের মধ্যে বন্ধুত্বের বিষয়ে হিমু বলেন, ব্যাংকে চাকরি করলেও মাঝেমধ্যেই সে সুন্দরি প্রতিযোগিতায় অংশ নেয় কিংবা
এর অর্গানাইজার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে। আমি ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে তার সঙ্গে মধুর সম্পর্ক তৈরি হয়েছে।”

এদিকে গ্রেফতার হওয়ার পরপরই হিমুকে নিয়ে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য পাওয়া গেছে। এক পক্ষের বক্তব্য অনুযায়ী রাজনীতি না করেই হুট করে নেতা বনে যান হিমু। তবে অন্য পক্ষ বলছেন এ বিষয় তাদের রাজ্যের না হওয়ায় এর দায় নেবেন না তারা।

হিমুর বিষয় নিয়ে পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের বলেন, “হিমু কখনোই আওয়ামী লীগ কিংবা যুবলীগের কর্মী কিংবা সংগঠক ছিলেন না। যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমানের নির্দেশে তাকে আমরা সাংগঠনিক সম্পাদক পদ দিতে বাধ্য হয়েছি।”

পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য যুবলীগের সভাপতি আলিমউদ্দিনও একই অভিযোগ করলে অভিযোগ সম্পর্কে সিদ্দিকুর রহমান বলেন, “হিমু পেনসিলভেনিয়া স্টেট কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক। তার ব্যাপারে আমি কিছুই জানি না। সেটি ওই স্টেটের কর্মকর্তাদের ব্যাপার।”

অভিযুক্ত হিমুর বিষয়ে কি ভাবছে সংগঠন জানতে চাইলে পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্য আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের জানান, হিমুর প্রসঙ্গটি কার্যকরী কমিটির বৈঠকে উত্থাপিত হবে। স্বেচ্ছায় তিনি পদত্যাগ না করলে আমরা তাকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেবো।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ ০৮ ডিসেম্বরর, ২০১৯

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৭:০১ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com