বাগেরহাটের রামপালে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

শুক্রবার, ১৬ জানুয়ারি ২০১৫

বাগেরহাটের রামপালে স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

 

imagesবাগেরহাটঃ বাগেরহাটের রামপালে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাফারা বেগম (৩৫) নামে এক গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার স্বামী। বুধবার গভীর রাতে রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওই গৃহবধুর মৃত্যু হয়। বৃহষ্পতিবার সকালে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের


জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। তবে নিহতের স্বামী এনামুল শেখকে (৩৯) পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। নিহত সাফারা বেগম রামপাল উপজেলা সদরের ঝনঝনিয়া গ্রামের জালাল ফকিরের মেয়ে।

নিহতের ভাই বেল্লাল হোসেন ফকির এ প্রতিনিধিকে জানান, পনেরো বছর আগে আমার বোন সাফারার সঙ্গে রামপাল উপজেলার উজলকুড় ইউনিয়নের সোনাতুনিয়া গ্রামের দিন মজুর এনামুল শেখের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে আমার ভগ্নিপতি প্রায় আমার বোনের সঙ্গে ঝগড়া বিবাদ করতো। বুধবার সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে তুচ্ছ ঘটনা নিয়ে আমার বোনের সঙ্গে ভগ্নিপতি এনামুলের ঝগড়া হয়। ঝগড়ার এক পর্যায়ে আমার ভগ্নিপতি রান্না ঘরে থাকা বসার কাঠের পিড়ি দিয়ে আমার বোনকে এলোপাথাড়ি মারপিট করলে সে মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়ে বমি করতে শুরু করে। আমার বোনকে মারধরের খবর পেয়ে আমি দ্রুত ছুটে গিয়ে তাঁকে উদ্ধার করে রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করি। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার রাত একটা পনেরো মিনিটের দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।

রামপাল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. ইমারত হোসেন বলেন, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দিন মজুর এনামুল তার স্ত্রী সাফারাকে মারধর করলে সে মাথায় গুরুতর আঘাত পান। মাথার আঘাতে কারনে তার মৃত্যু হয়েছে বলে রামপাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসকরা পুলিশকে জানিয়েছে। নিহত গৃহবধু সাফারার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতে চিহ্ন পাওয়া গেছে। নিহতের ছেলে আলী ইমরান ও সুরাইয়া আক্তার তাদের মাকে তার বাবা তুচ্ছ ঘটনায় প্রায় মারধর করতো বলে পুলিশকে জানিয়েছে। ঘটনার পর নিহতের স্বামী এনামুল শেখ পালিয়ে যাওয়ায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৯:২১ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ১৬ জানুয়ারি ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com