বাংলাদেশ সমিতির উদ্যোগে জর্জিয়ায় মহান একুশে উদযাপন

শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

বাংলাদেশ সমিতির উদ্যোগে জর্জিয়ায় মহান একুশে উদযাপন

Probashশনিবার রিপোর্টঃ গভীর শ্রদ্ধা এবং ভাব গাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে জর্জিয়ায় অমর একুশে মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করেছে জর্জিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিরা ।

জর্জিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের মূল সংগঠন জর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতির উদ্যোগে স্থানীয় বার্কমার হাই স্কুল প্রাঙ্গনে ২০ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদের স্মরণে নির্মিত অস্থায়ী শহীদ মিনারে পুস্পাঞ্জলি প্রদান করে মহান এই ভাষা দিবসের শ্রদ্ধা নিবেদন  করে। এ সময় সমবেত কন্ঠে ভরাট গলায় চলতে কন্ঠে একুশের সেই চিরজীবি গান- ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি ?’


দলীয় এবং সাংগঠনিক ভাবে একে অপররের সাথে বিরোধ থাকলেও ঐদিন সকলে দ্বন্দ ভুলে যে যার অবস্থান থেকে স্থানীয় বার্কমার হাই স্কুল নির্মিত  শহীদ মিনারের পুস্পাঞ্জলি প্রদান করে।

alজর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতি আয়োজিত অনুষ্ঠানে উল্লেখযোগ্য যেসব সংগঠন পুস্পাঞ্জলি প্রদান করে তার হলো,স্বাগতিক জর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতি,জর্জিয়া আওয়ামী লীগ ও তার বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠন,জর্জিয়া বিএনপি ও তার বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠন,জর্জিয়া সোস্যাল এন্ড কালচারারল অর্গানাইজেশন,নর্থ আমেরিকা বাংলাদেশ কনভেনশন (এনএবিসি),বাংলাদেশ পুজা অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়া (বিপিএ), জর্জিয়া পূজা পরিষদ,  সেবা লাইব্রেরী, বাংলা ধারা, মানচিত্র ফাউন্ডেশন, ডিসিআই জর্জিয়া চ্যাপ্টার,বাংলাদেশি আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন অব জর্জিয়া, প্রগ্রেসিভ ফোরাম, জর্জিয়া স্পোর্টস ফেডারেশন, জর্জিয়া বেঙ্গলি বয়েস ক্লাব, জর্জিয়া কালচারারল সোসাইটি,আটলান্টা থেকে প্রকাশিত ওয়েব পোর্টাল আওয়ামী মুখপত্র মুজিব সেনা ডট কম,আটলান্টা থেকে  প্রকাশিত ওয়েব পোর্টাল শনিবারের চিঠি ,প্রথম আলো উত্তর আমেরিকার স্থানীয় প্রতিনিধিসহ বিভিন্ন সংগঠন ।

bnpজর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতির সাংস্কৃতিক সম্পাদক সৈকত প্রধান ও সাধারণ সম্পাদক এ এইচ রাসেলের যৌথ সঞ্চালনায় পবিত্র কোরআন থেকে অংশ বিশেষ ও গীতা থেকে অংশ বিশেষ পাঠ এবং বাংলাদেশের জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনার  মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু হয় । এর পর পরই ঢাকার চকবাজারে মর্মান্তিক অগ্নি দূর্ঘটনায় নিহতদের আত্নার মাগফেরাত শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা এবং ভাষা শহীদের আত্নার মাগফেরাত কামনা করে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয় ।

pujaপুস্পাঞ্জলি প্রদানের আগে শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও শহীদ দিবসের তাৎপর্য উল্লেখ করে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন,মামুন শরিফ, মোহন জাব্বার, মোহাম্মদ আলী হোসেন, শেখ জামাল, রমেশ চন্দ্র সাহা,নাহিদুল খান সাহেল, হুমায়ূন কবির কাউসার, দিদারুল আলম গাজী, ডাঃ মুহম্মদ আলী মানিক, মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন, মোহাম্মদ জামান ঝন্টু প্রমুখ।

IMG_20190221_002823অনুষ্ঠানে প্রায় প্রতিটি বক্তা আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, আমরা ফেব্রয়ারি এলেই বাংলা ভাষায় মাহাত্ন নিয়ে কথা বলি কিন্তু আমাদের ঘরে এ প্রজন্মের শিশুদের প্রতি নজর দেই না।  এ প্রবাসের অনেক শিশুই বাংলা বলতে পারে না। স্কুল কলেজে তারা তো সর্বদা ইংরেজিতে কথা বলছে আপনারা বাসায় অন্তত নিজ মাতৃভাষায় কথা বলুন তা না হলে অদূর ভবিষ্যতে আমাদের নতুন প্রজন্ম বাংলা ভুলে যাবে । যে মাতৃভাষা কায়েম করতে বুকের রক্ত দিতে হয়েছে । তা একদিন বৃথা যাবে ।

lastজর্জিয়া বাংলাদেশ সমিতির সভাপতি মোস্তফা কামাল মাহমুদ পরিশেষে সকলকে ধন্যবাদ প্রদানের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি টানেন। এ সময়ে তিনি আরো জানান, আগামি ৩১ মার্চ রবিবার মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবসটিও জর্জিয়া প্রবাসী সকল সংগঠনের অংশ গ্রহনে সম্মিলিত ভাবে উদযাপনের আশা রাখি ।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ২২ ফেব্রুয়ারি , ২০১৯

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১২:৩২ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com