বাংলাদেশে মানব পাচার বন্ধে নতুন কর্মপরিকল্পনা

বুধবার, ০১ জুলাই ২০১৫

বাংলাদেশে মানব পাচার বন্ধে নতুন কর্মপরিকল্পনা

 

শনিবার রিপোটঃমানুষ পাচার বন্ধ করতে বাংলাদেশ সরকার একটি নতুন জাতীয় কর্মপরিকল্পনা শুরু করেছে। এতে পাচার বন্ধে বিভিন্ন সংস্থার দায়িত্ব ও করণীয় সম্পর্কে দিক-নির্দেশনা থাকছে।


সেই সঙ্গে জোর দেয়া হচ্ছে পাচারের শিকারদের উদ্ধার এবং বিশেষ করে নারী ও শিশুদের পূনর্বাসনের ওপর।

এই পরিকল্পনার সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মানব পাচার বন্ধের দায়িত্বে নিয়োজিতদের অনেকেই ঠিক মত দায়িত্ব পালন করছে না বলেই বাংলাদেশ থেকে মানব পাচার ঠেকানো যাচ্ছে না।

মানব পাচার বন্ধে কঠোর একটি আইন করা হলেও তা কার্যকরী হচ্ছে না বলেও অভিযোগ করা হচ্ছে।

ঠিক কী পরিমান মানুষ বাংলাদেশ থেকে পাচারের শিকার হচ্ছে, তার নির্ভরযোগ্য পরিসংখ্যান নেই, তবে ধারণা করা হয় গত তিরিশ বছরে কমপক্ষে দশ লাখ নারী ও শিশু পাচার হয়েছে। আর ইউনিসেফের একটি হিসেবে অনুযায়ী, প্রতিমাসে পাচার হয় ৪০০ জন নারী ও শিশু।

তিন বছর মেয়াদী চলতি কর্মপরিকল্পনাটি হলো এ ধরনের তৃতীয় পরিকল্পনা। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আবু হেনা রহমাতুল মুনীম মুনীম বলছেন, সদ্য শুরু করা পরিকল্পনায় পাচার-প্রবন এলাকায় সচেতনতা তৈরীতে বিশেষভাবে নজর দেয়া হবে। আর বেসরকারী জনশক্তি রপ্তানী প্রতিষ্ঠানগুলো যাতে প্রতারণা করতে না পারে, সেদিকে নজর দেয়া প্রয়োজন বলেও তিনি মনে করেন।বিবিসি।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা /  ১ জুলাই ২০৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৯:৪৩ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ০১ জুলাই ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com