ভুমিকম্পে বগুড়ায় গৃহবধু নিহতঃ অনেক ভবনে ফাটল

শনিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৫

ভুমিকম্পে বগুড়ায় গৃহবধু নিহতঃ অনেক ভবনে ফাটল

বগুড়া: ভূমিকম্পে দেয়াল চাপা পড়ে বগুড়ার দুপঁচাচিয়ায় এক গৃহবধূ নিহত হয়েছেন। এছাড়াও জেলার বিভিন্ন উপজেলার কয়েকটি সরকারি ভবন দেবে গেছে। অনেক ভবনে দেখা দিয়েছে ফাটল।

শহরের বেশ কয়েকটি বহুতল ভবন হেলে পড়ার গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়লেও ভবনের মালিক পক্ষ তা স্বীকার করেননি।


শনিবার বেলা ১২টা ১৩ মিনিটে হঠাৎ ভূমিকম্পে জনমনে চরম আতঙ্ক দেখা দেয়। বহুতল ভবনগুলো থেকে শত শত লোকজন রাস্তায় বেরিয়ে আসে। প্রথম দফা ভূমিকম্পের পর ১২টা ৪৮ মিনিটে আবারো ভূমিকম্প অনুভূত হয়। তবে, দ্বিতীয় দফা ভূমিকম্প বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি।

এদিকে, দুপুরে দুপচাঁচিয়া উপজেলার উনাহত সিংড়া গ্রামের বয়েজ উদ্দিনের স্ত্রী মোর্শেদা বেগম (৫৫) গোয়াল ঘরে কাজ করার সময় ভূমিকম্পে গোয়াল ঘরের মাটির দেয়াল ধসে পড়ে। এতে দেয়াল চাপা পড়ে তিনি গুরুতর আহত হন। পরে তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হলে দুপুর ২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এছাড়াও ভূমিকম্পে নন্দীগ্রাম উপজেলার ভাটগ্রাম ইউনিয়ন উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রাচীর ধসে পড়েছে। একই উপজেলার বিজরুলে অবস্থিত উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবনে ৫০-৬০ ফুট এলাকা জুড়ে ফাটল দেখা দিয়েছে।

অপরদিকে, শাজাহানপুর উপজেলার খোট্টাপাড়া ইউনিয়নের ভোমর কুঠি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবনের একাংশ দেবে গিয়ে ফাটল দেখা দিয়েছে।

সোনাতলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাবিবুর রহমান জানান, ভূমিকম্পের প্রভাবে উপজেলা ডাকবাংলোর ১২০ মিটার প্রাচীর ধসে পড়েছে। এছাড়া উপজেলার পাঠানপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি একাডেমিক ভবন মাটিতে দেবে গেছে এবং ভবনে ফাটল ধরেছে।

শহরের সাতমাথায় নদী-বাংলা কমপ্লেক্স, মফিজ পাগলার মোড়ে সেঞ্চুরি হাউজিং এর একটি ভবন এবং সপ্তপদী মার্কেটের পাশের একটি ভবন হেলে পড়ার খবর পাওয়া গেলেও ভবন মালিক পক্ষ থেকে তা স্বীকার করা হচ্ছে না। ভূমিকম্পের পরপরই এসব ভবনের সামনে শত শত লোক ভিড় জমায়।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আবুল বাসার জানান, সপ্তপদী মার্কেটের পাশে রানার বিল্ডিং নামের একটি ভবন হেলে পড়ার খবর পাওয়া গেছে।

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / এপ্রিল ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৭:৪৩ অপরাহ্ণ | শনিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com