বক্তব্য প্রদানের জন্য আধা ঘন্টায় হিলারীর দাবী ৩ লাখ ডলার

রবিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৪

বক্তব্য প্রদানের জন্য আধা ঘন্টায়  হিলারীর দাবী ৩ লাখ ডলার

 

us elcর্ণমালা নিউজ, নিউইয়র্কঃ  ২০১৬ সালের সম্ভাব্য ডেমোক্রেট প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারী কিনটন সবচেয়ে মূল্যবান বক্তা হিসেবে আভির্ভূত হচ্ছেন। দিন দিন তার মূল্য বেড়েই চলেছে। যদিও সমালোচকরা বলছেন,  প্রেসিডেন্ট প্রার্থীতায় তার নাম আসায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছ থেকেও  বেশি অর্থ নিচ্ছেন হিলারী। সম্প্রতি হিলারী একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে  বক্তব্য দেয়ার বিনিময়ে তিন লাখ ডলার দাবি করেছেন। যেটা তার স্বামী ক্লিনটনের চেয়েও ৫০ হাজার ডলার বেশি।


গত মার্চে ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া এ্যাট লস এঞ্জেলেস এ বক্তব্য দেয়ার জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন হিলারী।  সে সময়  সামান্য স্নাকস,ডায়েট জিনজার, গরম-ঠান্ডা পানি আর কিছু টুকরো ফল রাখার জন্য বলা হয়। এর পাশাপাশি কি ধরনের চেয়ার ও পিলো রাখতে হবে তাও বলে দেয়া হয়। এমনকি হিলারীকে একটি বক্সের ভেতরে  ভরা অবস্থায় একটি মেডেল দেয়ার কথাও বলা হয়। সব কিছুই ঠিক ছিল  কিন্তু কর্তৃপক্ষ আৎকে উঠেন যখন আধ ঘন্টার বক্তব্যের জন্য ৩ লাখ ডলার দাবি করা হয়। এ সময় হিলারীর টিম মেম্বারদের কাছে অনুরোধ করে বলা হয়, এটা যেহেতু একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তাই অংকটা ছোট করার জন্য। সাথে সাথেই উত্তর আসে ‘এটা অলরেডি ইউনিভার্সিটির জন্য ডিসকাউন্ট রেট।’ আর জানানো হয়, এই অর্থ তারা ব্যক্তিগত কাজে না লাগিয়ে বিল হিলারী এ্যান্ড চেলসি ফাউন্ডেসনের ফান্ডে দিবেন। উল্লেখ্য এই ইউনিভার্সিটি বছর শেষে দাতাদের কাছ থেকে ফান্ড রেইজিং করে যে অর্থ আয় করে তার চেয়েও বেশি হিলারীর ভাষনের দাম।  এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থী ম্যাক কেন্না সমালোচনা করে বলেছেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে এত বেশি চার্জ করার কারণে তার প্রেসিডেন্ট প্রার্থীতার সময়ে ফান্ড রেইজিং বাধা গ্রস্থ হতে পারে।

একই প্রতিষ্ঠানে বিল কিনটন ২০১২ সালে বক্তব্য দিয়ে পেয়েছিলেন দুই লাখ ৫০ হাজার ডলার। এর আগেও ইউনিভার্সিটি অব নেভায় ভাষণ দিয়ে হিলারীর পাওয়া সোয়া দুই লাখ ডলার ফেরত চেয়ে ছাত্ররা আন্দোলন করেছিল। ওয়াশিংটন পোষ্ট ও সিবিএস নিউজ রবিবার এ খবর প্রকাশ করেছে।

বিল কিনটন ২০০১ সালে হোয়াইট হাউজ ছাড়ার পরে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ৪৫২ টি বক্তব্য দিয়ে ১০৫ মিলিয়ন ডলার আয় করেছেন।

উল্লেখ করা প্রয়োজন, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডাব্লিউ বুশ প্রতি বক্তব্যের জন্য এক লাখ ডলার, কিনটন এক থেকে আড়াই লাখ ডলার নিয়ে থাকেন। যুক্তরাজ্যের সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি ব্লেয়ার উল্লেখযোগ্যভাবে প্রতি মিনিটে ছয় হাজার পাউন্ড পেয়েছেন ফিলিপাইনের ম্যানিলায় ভাষন দিয়ে। তিনি এক বক্তব্যে একদিনেই আয় করেছিলেন তিন লাখ ৬৪ হাজার পাউন্ড

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:১০ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৪

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com