মোংলায়

প্রেমের জাল পেতে ভারতীয় কন্যার বাংলাদেশি ছেলে অপহরণের অভিযোগ

বন্দরের ৫ নিরাপত্তা প্রহরীসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা, আটক-২

শনিবার, ১১ জুন ২০২২

প্রেমের জাল পেতে ভারতীয় কন্যার বাংলাদেশি ছেলে অপহরণের অভিযোগ
আটক জামাল হোসেন ও ওবায়দুর হোসেন ( ইনসেটে যুবক অঙ্কন ) ছবিঃ মোংলা পুলিশ

প্রেমের জাল পেতে বাংলাদেশি  ছেলেকে অপহরণে অভিযোগ উঠেছে  ভারতীয় এক কন্যার বিরুদ্ধে।  এ ঘটনাটি গতকাল  ১০  শুক্রবার বাগেরহাটের মোংলায় পোর্টে ঘটে । স্থানীয়দের সহায়তায় অপহরণের হাত থেকে রক্ষা পেলেও রক্ষা পেলেও নগদ টাকা , মোবাইল, হাত ঘড়ি সবই খুয়িছে ঐ ছেলে । তার নাম  আব্দুর রহমান অঙ্কন। সে রাজধানী ঢাকার বাসিন্দা। এ  ঘটনায়  মোংলা বন্দরের ৫ নিরাপত্তা প্রহরীসহ ৭ জনের নামে মোংলা থানায় মামলা হয়েছে।  ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বাংলাদেশি দুই যুবককে গ্রেপ্তার করছে মোংলা পুলিশ ।

থানার মামলা সুত্রে জানা যায় , ঢাকার মোহাম্মাদপুর কাটাসুর এলাকার ষ্টেশনারী ব্যবসায়ী আব্দুল মান্নান মিয়ার ছেলে আব্দুর রহমান অঙ্কন (২৬) এর সাথে দেড় বছর আগে ফেইসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হয় ভারতের পশ্চিম বঙ্গের বনগাঁও এলাকায় দিপু বাইনের মেয়ে প্রিয়াঙ্কা বাইন (২৮)’র । সোস্যাল মিডিয়ায় দীর্ঘ দিনের আলাপচারিতায় ভারতীয় ওই যুবতী প্রেমের জাল পাতে।  আর সে জালে ধরা পড়ে ঢাকার যুবক অঙ্কন। চলতি বছরের গত ১৪ এপ্রিল ভ্যালেন্টাইন ডের দিনে   দুই জনের সাথে প্রথম দেখা হয় খুলনায় সোনাডাঙ্গায়। সেখানে একটি  আবাসিক হোটেলে স্বামী-স্ত্রী পরিচয়ে দুজনে প্রায় ৫ দিন রাত যাপন করেছে বলে জানায়  অঙ্কন। সেখান থেকে ভারতীয় ওই যুবতী নিজ দেশে চলে যায় । আর  অঙ্কনও ফিরে যায় ঢাকায় ।  এর পর থেকে তারা একে অপরের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে চলে। দ্বিতীয় বার ওই একই আবাসিক হোটেলে  মিলিত হয় তারা।


এরই মধ্যে   জাফর নামের মোংলা বন্দরের এক নিরাপত্তা প্রহরীর সাথে পরিচয় হয় ভারতীয় যুবতী প্রিয়াঙ্কা বাইনের।  এর পরে দুজনে মিলে  অঙ্কনকে অপহরণ করে মুক্তিপনের মাধ্যমে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করে । সর্বশেষ শুক্রবার (১০ জুন) অঙ্কনের সাথে দেখা করার জন্য ভারত থেকে প্রিয়াংকা বাইন মোংলায় আসে এবং তাকেও সেখানে আসতে বলে। শুক্রবার দুপুরে  অঙ্কন মোংলায় এসে  প্রিয়াঙ্কার সাথে দেখা করে সে। সেখানে আগে থেকেই বন্দরের ৫ নিরাপত্তা কর্মচারীসহ কয়েকজন  অঙ্কনকে অপহরণের জন্য প্রস্তুত করে রাখে  প্রিয়াঙ্কা ও জাফর।

বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে সুন্দরবন ভ্রমনের কথা বলে কৌশলে একটি জালিবোর্ট (নৌযান) ভাড়া করে জাফর। এসময় অন্যান্যদের সাথে নিয়ে নৌযানে করে বন্দরের পশুর নদীর মাঝ পথে নিয়ে অঙ্কনকে হাত-পা বেধে মারধর শুরু করে এবং তাঁকে বিবস্ত্র করে মোবাইল ফোনে ভিডিও ধারন করে অপহরণকারীরা। একই সাথে তার সাথে থাকা নগদ টাকা, মোবাইল ও ওয়ালেটসহ অন্যান্য সামগ্রী ছিনিয়ে নেয় । মোংলা বন্দরের নিরাপত্তা কর্মচারী ঢাকার মুন্সিগঞ্জ জেলার দেলোয়ার হোসেন’র ছেলে জামাল হোসেন (২৫), জাফর (২৬), দুলাল (২৫), তানভির (২৭) আখিরুল (২৫)। ঘটনাটি  নদীতে অন্যান্য নৌযান কর্মীরা দেখে ফেলায় সেখান থেকে তাকে মোংলা বাস স্ট্যান্ডে নিয়ে জোর পুর্বক একটি মাইক্রোবাসে উঠানোর চেস্টা করে অপহরণকারীরা। এসময় অঙ্কনের ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে এসে তাকে রক্ষা করে এবং পুলিশকে খবর দেয়। ঘটনাস্থলে  পুলিশ এসে অঙ্কনকে উদ্ধার করে।  ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে বন্দরের নিরাপত্তা প্রহরী জামাল হোসেন ও বোট চালক ওবায়দুর হোসেনকে আটক করে পুলিশ। কিন্ত কৌশলে ভারতীয় যুবতী  প্রিয়াঙ্কা বাইন ও অন্যান্যরা   পালিয়ে যায়। শুক্রবার রাতে বন্দরের ৫ নিরাপত্তা প্রহরী, বোট চালক ও ভারতীয় যুবতী   প্রিয়াঙ্কা বাইনকে আসামি করে মোংলা থানায় মামলা দায়ের করা হয়। শনিবার দুপুরে আটক দুই জনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ মনিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে  বলেন, প্রেমের জাল পেতে ঢাকার যুবককে  অপহরণের ঘটনায় বন্দরের কয়েকজন নিরাপত্তা প্রহরী জড়িত রয়েছে। খবর পেয়ে ঘটনা স্থল থেকে পুলিশ দুই জনকে আটক করেছে। এছাড়া ভারতীয় যুবতী ও বন্দরের ৫ নিরাপত্তা প্রহরীসহ ৭জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা নেয়া হয়েছে। মামলা দায়ের শেষে শনিবার দুপুরে আটক ২ জনকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে বলে জানায় মোংলা থানার এ কর্মকর্তা।

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৭:৫৩ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১১ জুন ২০২২

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com