পিরোজপুরে হচ্ছে ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু।

শনিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৪

পিরোজপুরে হচ্ছে ৮ম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু।

Piroপিরোজপুরঃ পিরোজপুরে হতে যাচ্ছে ৮মত বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতু। সে লক্ষ্যে লক্ষ্যে মিনিটস অব মিটিং (এমওএম) চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তিতে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এমএএন ছিদ্দিক এবং চীন সরকারের পক্ষে ঢাকায় নিযুক্ত চীনা দূতাবাসের ইকোনোমিক অ্যান্ড কমার্শিয়াল কাউন্সিলর ওয়াং জিজিয়ান স্বাক্ষর করেন। অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বরিশাল-খুলনা সড়কের পিরোজপুরের কচা নদীর উপরে প্রায় এক হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে এই সেতু নির্মিত হবে। এর মধ্যে চীন সরকার অর্থায়ন করবে প্রায় ৮০০ কোটি টাকা, বাকী অর্থের যোগান দেবে বাংলাদেশ। প্রায় দেড় কিলোমিটার দীর্ঘ এবং ১৩ মিটার প্রস্থের এই সেতুর সঙ্গে ১৪ কিলোমিটার সংযোগ সড়কও নির্মাণ করা হবে। মন্ত্রী জানান, অষ্টম বাংলাদেশ চীন-মৈত্রী সেতু বা বেকুটিয়া সেতু নির্মাণের জন্য চলতি বছরের অক্টোবরে দুই দেশের মধ্যে লেটার অব এক্সচেঞ্জ স্বাক্ষরিত হয়। এর ধারাবাহিকতায় চীনের একটি বিশেষজ্ঞ দল নভেম্বরে অন-সাইট ইনভেস্টিগেশন করে। এর ভিত্তিতে ফিজিবিলিটি প্রতিবেদন তৈরি করে নকশা প্রণয়ন ও পরামর্শক নিয়োগ করা হবে। পাশাপাশি ডিপিপি প্রণয়ন ও নির্মাণকাজের দরপত্র আহ্বান করা হবে। আগামী এক বছরের মধ্যে প্রক্রিয়াগত সব কাজ শেষ করে ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হবে। আগামী তিন বছরের মধ্যে এই সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হবে বলে আশা করেন মন্ত্রী।

Facebook Comments Box


বাংলাদেশ সময়: ১০:৩৬ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৪

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com