পাকিস্তানের ৪০ শতাংশ পাইলটের লাইসেন্স ভুয়া

শনিবার, ২৭ জুন ২০২০

পাকিস্তানের ৪০ শতাংশ পাইলটের লাইসেন্স ভুয়া
ছবি গালফ নিউজ

পাকিস্তানের বিমানমন্ত্রী গুলাম সারওয়ার বলেছেন, দেশটির প্রায় ৪০ শতাংশ পাইলটের লাইসেন্স ভুয়া। সম্প্রতি করাচিতে হওয়া পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের (পিআইএ) একটি বিমানের দুর্ঘটনার একটি প্রাথমিক তদন্ত প্রতিবেদন পাকিস্তানের ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে উপস্থাপনকালে তিনি এ কথা বলেন। খবর গালফ নিউজের।

পাকিস্তানের বিমানমন্ত্রী বলেন, পিআইএ, সিরিন এয়ার ও এয়ার ব্লুর পাইলট মিলিয়ে দেশটিতে ৮৬০ জন সক্রিয় পাইলট রয়েছেন। ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি শুরু হওয়া একটি তদন্তে জানা যায়, ২৬২ জন পাইলট পরীক্ষা দেয়নি এবং তাদের পরিবর্তে অন্য কেউ পরীক্ষা দিয়েছে।


সারওয়ার বলেন, আমরা তদন্তে দেখতে পেয়েছি- যেসব পাইলটের ‘ভুয়া’ লাইসেন্স রয়েছে, তাদের যথাযথ ফ্লাইং অভিজ্ঞতাও নেই। ৪০ শতাংশ ‘ভুয়া’ লাইসেন্সধারীদের মধ্যে এখন আর ‘সচল বৈমানিক’ নন এমন শত শত পাইলটও রয়েছেন।

পাকিস্তানের বিমানমন্ত্রী আরও বলেন, দুর্ভাগ্যজনকভাবে রাজনৈতিকভাবেও পাইলটের নিয়োগ দেয়া হয়েছে। পাইলট নিয়োগ দেয়ার সময় মেধার ‍বিষয়টি মূল্যায়ন করা হয়নি। মন্ত্রীর বরাত দিয়ে পাকিস্তানি গণমাধ্যম জানিয়েছে, পিআইএ-র অন্তত চারজন পাইলটের ডিগ্রি ভুয়া বলেও তারা খুঁজে পেয়েছেন।

প্রাথমিক ওই তদন্ত প্রতিবেদনে করাচিতে পিআইএ-র বিমান দুর্ঘটনার জন্য পাইলট ও এয়ার কন্ট্রোল টাওয়ার দায়ী বলে জানান পাকিস্তানের বিমানমন্ত্রী। গত ২২ মে করাচি বিমানবন্দরের কাছে ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় বিধ্বস্ত হয় পিআইএ ফ্লাইট পিকে৮৩০৩। বিমানটি আটজন ক্রুসহ ৯৯ জন আরোহী ছিলেন। দুর্ঘটনায় দুইজন ছাড়া বাকি সবাই মারা যান।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ জুন ২৭, ২০২০

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:১১ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ২৭ জুন ২০২০

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com