সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে নিউইয়র্কে বিএনপির দু’গ্রুপের হাতাহাতি

মঙ্গলবার, ০১ জুন ২০২১

সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে নিউইয়র্কে বিএনপির দু’গ্রুপের হাতাহাতি
বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনেই এই ধাক্কাধাক্কি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে [ ছবিঃ বাংলাপ্রেস ] ।

নিউইয়র্কে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক  প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালনকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছে।

যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির মূল কমিটির বদলে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটি ঘোষণার পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে বিএনপিতে চরম অনৈক্য ও উত্তেজনা দেখা দেয়। ফলে গত শনিবার (২৯ মে) জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীর কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনেই এই ধাক্কাধাক্কি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।


যুক্তরাষ্ট্রে ৯ বছর ধরে বিএনপির কোন কমিটি নেই। এরই মধ্যে হঠাৎ করে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটি ঘোষণার পর কোন্দল আগের চেয়ে দ্বিগুণ বেড়েছে। গত এক মাসে দলের ভেতরে নেতাকর্মীদের মাঝে তিক্ততাও বেড়েছে।

সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে শনিবার যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির ব্যানারে নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের পালকি পার্টি সেন্টারে আলোচনা সভা ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সহ-আন্তর্জাতিক সম্পাদক ও জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন।  প্রধান বক্তা ছিলেন জাতীয়তাবাদী সামাজিক সাংস্কৃতিক সংস্থার (জাসাস) কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য চিত্রনায়ক হেলাল খান।

অনুষ্ঠান শেষে এই দুই নেতার সামনেই মারামারিতে লিপ্ত হন বিবাদমান দুই অংশের নেতা-কর্মীরা।  একাংশের নেতা-কর্মীদের হাতে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হয়েছেন বিএনপি নেতা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা মশিউর রহমান। এ নিয়ে তুমুল হট্টগোল দেখা দেয় অনুষ্ঠানস্থলে। বেবী নাজনীন পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন।

নেতৃত্বের কোন্দলে প্রায় এক দশক আগে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। এরপর কেন্দ্র থেকে কোনো কমিটি দেওয়া হয়নি। এতে সাধারণ নেতা-কর্মীরা নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েন। পরে দলের চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা ও সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব এম এ সালামের উদ্যোগে গত ১২ এপ্রিল ৫০১ সদস্যের একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়। কিন্তু এই কমিটি থেকে বহু নেতা-কর্মী বাদ পড়ায় সৃষ্টি হয় অচলাবস্থা।  কয়েক গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়ে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি। রোজার সময় অনুষ্ঠিত হয় পাল্টাপাল্টি ইফতার মাহফিল। সর্বশেষ জিয়াউর রহমানের ৪০তম মৃত্যুবার্ষিকীতে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির ব্যানারে কমপক্ষে আটটি অনুষ্ঠানের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। শনিবার যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির ব্যানারে অনুষ্ঠিত হয়েছে দুটি পৃথক অনুষ্ঠান। স্থানীয় সময় রোববার অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে আরো দুটি অনুষ্ঠান।  এছাড়া সোমবারও একাধিক অনুষ্ঠান হবে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ব্যানারে।

শনিবার পালকি সেন্টারের অনুষ্ঠানে নেতা-কর্মীদেরকে রোববারের অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ জানাতে গিয়েছিলেন সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক জিল্লুর রহমান জিল্লুর এবং সদস্য সচিব মিজানুর রহমান ভূঁইয়া মিল্টনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। কিন্তু এ অনুষ্ঠানে দুই গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে প্রথমে মৃদু বাদানুবাদ, পরে তুমুল হট্টগোল দেখা দেয়। একপর্যায়ে একাংশের নেতা আলমগীর হোসেনের হাতে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত হন আরেক অংশের নেতা মুক্তিযোদ্ধা মশিউর রহমান। আলমগীর হোসেন সজোরে ধাক্কা মারলে মশিউর রহমান নিচে পড়ে আহত হন। পরে অন্য নেতা-কর্মীরা তাদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। বেবী নাজনীন সবাইকে শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়ে ব্যর্থ হন।

এ ব্যাপারে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বেবী নাজনীনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা একটা ভুল বোঝাবুঝি ছিল। একটি সংগঠনের ব্যাপারে একাধিক অনুষ্ঠান আয়োজন সম্পর্কে তিনি বলেন, বিএনপি বড় দল। একাধিক অনুষ্ঠান মূলতঃ এ কারণেই হচ্ছে বলে মনে করেন তিনি।

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫৬ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০১ জুন ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com