নারায়নগঞ্জে শিক্ষককে অপদস্ত বিব্রত শিক্ষামন্ত্রী

সোমবার, ১৬ মে ২০১৬

নারায়নগঞ্জে শিক্ষককে অপদস্ত  বিব্রত শিক্ষামন্ত্রী

ঢাকা : নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলায় সাংসদ  সেলিম ওসমান জনসমুক্ষে  স্কুলের প্রধান শিক্ষককে কান ধরে উঠবস করে অপদস্ত করার ঘটনায় বিব্রত শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেছেন, একজন শিক্ষকের সঙ্গে এ আচরণ গ্রহণযোগ্য নয়।

সোমবার (১৬ মে) সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ কথা বলেন। তিনি বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় তদন্ত কমিটি গঠন করবে।


গত ১৩ মে বিকেলে ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি এবং শিক্ষার্থীকে মারধর করার অভিযোগে কলাগাছিয়া ইউনিয়নের কল্যান্দি এলাকায় পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে গণপিটুনি দিয়ে সবার সামনে কান ধরে উঠবস করিয়ে ক্ষমা চাওয়ানো হয়।

তবে ওই শিক্ষক বলছেন, তার বিরুদ্ধে পরিকল্পিতভাবে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে। এর আগেও কয়েকবার বিভিন্ন ইস্যুতে ষড়যন্ত্র করে ব্যর্থ হয়ে সবশেষ ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দেয়ার মিথ্যা অভিযোগ তাকে অপদস্ত করা হয়।

তিনি ইসলাম ধর্ম নিয়ে কোনো ধরনের নেতিবাচক কথা বলেননি। ছাত্রকে মারধরের অভিযোগটিকে নানাভাবে ভিন্ন দিকে প্রবাহিত করে স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি ও প্রধান শিক্ষকের স্থলে অন্য একজনকে বসাতেই এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে বলে ওই শিক্ষকের অভিযোগ।

শ্যামল কান্তি ভক্ত বলেন, ‘গত কয়েক মাস ধরে ম্যানেজিং কমিটি চাচ্ছে না আমি প্রধান শিক্ষক পদে থাকি। আর এ নিয়ে তাদের সঙ্গে আমার মতবিরোধ সৃষ্টি হয়। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ফারুকুল ইসলামের বোন পারভীন আক্তারকে প্রধান শিক্ষক করতেই মূলত চেষ্টা করা হচ্ছে। এ ছাড়া স্কুলের ব্যবস্থাপনা কমিটির তিনজন সদস্য মতিউর রহমান, উপজেলা নির্বাহী অফিসের পিয়ন মতিউর রহমান ও মোবারক হোসেন এ তিনজন মিলেই আমাকে পদ থেকে সরাতে সর্বাত্মক চেষ্টা করছে।’

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘ওই ঘটনার খোঁজখবর নিয়েছি। এটা দুঃখজনক। একজন শিক্ষকের ওপর এ ধরনের আচরণ করা কারওই কাম্য হতে পারে না।’

‘ওই শিক্ষক ভুল করতে পারেন। আমরাও ভুল করি। অনেক শিক্ষক ভুল করেন। এর জন্য আমরা ব্যবস্থাও নিই’ বলেন মন্ত্রী। কিন্তু কান ধরে উঠবস করানো গ্রহণযোগ্য নয় বলে মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরা বিব্রত।’

গত ৮ মে স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্র রিফাতকে মারধর করেন প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্ত। ওই ঘটনাকে পুঁজি করে ‘ষড়যন্ত্রকারীরা’ ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তির অভিযোগ তুলেছে বলে গণমাধ্যমকে বলেছেন তিনি।

এদিকে, বরিশালে এক শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার ঘটনা খতিয়ে দেখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

তিনি বলেছেন, বরিশাল শিক্ষাবোর্ডকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে দেখতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া এসব বিষয় পর্যালোচনা করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নিয়ে সভা করা হবে বলেও জানান তিনি।

শনিবারের চিঠি/আটলান্টা/মে ১৬, ২০১৬

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:৪৮ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৬ মে ২০১৬

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com