দেশের ১৭ কোটি মানুষের আশা- আকাঙ্খা পূরণ হতে যাচ্ছে — আরিফ খান জয়

রবিবার, ২৬ জুলাই ২০১৫

দেশের ১৭ কোটি মানুষের আশা- আকাঙ্খা পূরণ হতে যাচ্ছে —  আরিফ খান জয়

 

বাংলাপ্রেস, নিউইয়র্কঃ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ক্ষুধা মুক্ত, দারিদ্র্যমুক্ত, স্বাধীন সার্বভৌম সুখী সমৃদ্ধশালী সোনার বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশের বর্তমানে ১৭ কোটি মানুষের সেই আশা-আকাঙ্খা পূরণ হতে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন ও সোনার বাংলাদেশ গড়তে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। গত ২২ জুলাই  বুধবার সন্ধ্যায় নিউ ইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসে পালকি সেন্টারে যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় যুব ও ক্রীড়া উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় এ কথা বলেন । আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী যুব লীগের আহবায়ক একে এম তারিকুল হায়দার চৌধুরি এবং উপস্থপনায় ছিলেন  যুগ্ন আহবায়ক বাহার খন্দকার সবুজ ।।


তিনি আরো বলেন বলেন, গণজাগরন মঞ্চের আন্দোলন বিফলে যায়নি। ১০ জানুয়ারি জাতীয় সংসদ নির্বাচন না হলে দেশ আবার স্বৈর শাসকদের রাজত্বে পরিণত হত। জনগণের অধিকার ভলুণ্ঠিত হতো এবং স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি বাংলাদেশকে আইয়ামে জাহিলিয়াতের যুগে নিয়ে যেত। শেখ হাসিনা ১৭ কোটি মানুষকে অন্ধকার থেকে টেনে বের করে আলোর পথে নিয়ে যাচ্ছেন। সকল বিভেদ ভুলে দলমত নির্বিশেষে সেই আলোর পথে শেখ হাসিনার সহযাত্রী হতে আহ্বান জানান তিনি।

বক্তব্য রাকছেন যুক্তরাষ্ট্র যুব লীগের আহবায়ক একে এম তারিকুল হায়দার চৌধুরির

বক্তব্য রাখছেন যুক্তরাষ্ট্র যুব লীগের আহবায়ক একে এম তারিকুল হায়দার চৌধুরি

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন নিউ ইয়র্ক সিটি আওয়ামী লীগের সভাপতি কমান্ডার নুর নবী, সাবেক সংসদ সদস্য মুনিরুল ইসলাম, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিউদ্দিন দেওয়ান, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মামুন, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের সদস্য অ্যাডভোকেট জামাল হোসেন, সাইকুল ইসলাম দপ্তর সম্পাদক যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ ও যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক টিটু রহমান , ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত। তিনি বলেন, ১৯৭২ সালে সরকার রেশনে শার্ট সেলাই করার জন্য আমাদের কাপড় দিত। আর আজ বাংলাদেশ বিশ্বের এক নম্বর শার্ট রপ্তানিকারক দেশ। আমেরিকার ব্রান্ডেড সব সুপারশপে এখন মেড ইন বাংলাদেশের শার্ট পাওয়া যায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশে এখন বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২৫ বিলিয়ন ডলার, রেমিটেন্স যাচ্ছে ১৫ বিলিয়ন আর আমদানি-রপ্তানি প্রায় ৪০ বিলিয়ন ডলার। শুধু অর্থনীতি নয়, ক্রিকেটে বাংলাদেশ অনেক এগিয়ে গেছে। বাংলাদেশ এখন পাকিস্তানকে পেটাচ্ছে, ভারতকে পেটাচ্ছে, সাউথ আফ্রিকাকে পেটাচ্ছে। দলের খেলা দেখলে বিশ্বাসই হয় না একি বাংলাদেশ খেলছে না কোন ক্রিকেট পরাশক্তি খেলছে।

উপস্থিত সুধী মন্ডলীর একাংশ

উপস্থিত সুধী মন্ডলীর একাংশ

এছাড়াও অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপ কমিটির সহ-সম্পাদক রাশেক রহমান, সাইফুলল্লাহ ভূইয়া, একরামুল হক সাবু, শফি আনসারি, যুক্তরাষ্ট্র যুবলীগ সদস্য আতিকুর রহমান সুজন, স্বপন কর্মকার,শ্যামল শাহ, সিরাজুল ইসলাম, নিউ ইয়র্ক সিটি যুবলীগের আহ্বায়ক মীর সিকদার মিরু, যুগ্ম আহ্বায়ক মনুজুরুল ইসলাম, ব্রুকলিন বরো যুবলীগের আহ্বায়ক মো. আলাউদ্দিন, যুগ্ম আহ্বায়ক এটিএম রানা, আরিফ খান, খন্দকার জাহিদুল ইসলাম, মো. সুমন, কামাল হোসেন ও ফজলুর রহমান প্রমুখ।

শনিবারের চিঠি /আটলান্টা / ২৬ জুলাই ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৪:৫৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২৬ জুলাই ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com