দেশের বিভিন্ন স্থানে নিজামীর গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত

বৃহস্পতিবার, ১২ মে ২০১৬

দেশের বিভিন্ন স্থানে  নিজামীর গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত

নিউজ ডেস্কঃ  প্রখর রোদ উপেক্ষা করে রাজধানী ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট রাজশাহী ও রংপুরে অনুষ্ঠিত জামায়াতে ইসলামী আমির মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর গায়েবানা নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। নিম্নে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ পরিবেশিত হলোঃ

বুধবার রাতে নিজামীর ফাঁসি কার্যকরের পর সকালে নিজামীর গ্রামের বাড়ীতে জানাজা সম্পন্ন হয়। সেখানেও ব্যাপক জনতার উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। এরপর পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী সারা দেশে বিভিন্ন জায়গায় গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।


এছাড়াও দেশের বাইরে বিভিন্ন জায়গা থেকে গায়েবানা জানাজা নামাজ অনুষ্ঠিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

প্রশাসনের বাধা উপেক্ষা করে প্রখর রোদের মাঝেও সারা দেশে অনুষ্ঠিত নিজামীর গায়েবানা জানাজা নামাজে ব্যাপক জনসমাগম হয়।

বায়তুল মোকাররম
রাজধানীর জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকাররমে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর আমির মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর গায়েবানা জানাযায় জনতার ঢল নামে। বুধবার বাদ যোহর এই গায়েবানা জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

জানাযার নামাজে জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্র শিবিরের হাজার হাজার নেতা-কর্মীরা পাশাপাশি জনসাধারণ এতে অংশগ্রহণ করেন। মসজিদের দোতলা তিন তলা পূর্ণ হয়ে অনেকেই সিড়িতে নামাজ পড়তে দেখা যায়।

এসময় বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেট ও আশপাশের এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্যের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। তবে এসময় কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।

শান্তিপূর্ণভাবে জানাজা শেষে জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মীদের উচ্চস্বরে কালিমা পড়তে পড়তে মসজিদের বিভিন্ন তলা থেকে বের হয়ে আসেন।
অনেক নেতা-কর্মীকেই কান্না করতে দেখা যায়। অনেকেই এ সময় বিজয়সূচক ভী চিহ্ন দেখান। এসময় দু’একজন নেতাকর্মী স্লোগান দেয়ার চেষ্টা করলে অন্যরা থামিয়ে দেন।

অনেকেই উচ্চস্বরে বলতে থাকেন আল্লাহু আকবার, আল্লাহু আকবার, ন্যায় বিচার আল্লাহ একদিন অবশ্যই করবেন।

সিলেট আলিয়া মাদরাসা
ঐতিহাসিক সিলেট সরকারি আলিয়া মাদরাসা ময়দানে সম্পন্ন হয়েছে মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর গায়েবানা জানাজা। বেলা ২টায় জানাজা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও জোহরের নামাজ শেষ হওয়ার সাথে সাথে দলে দলে মুসল্লীগণ আলিয়া মাদরাসা ময়দানে সমবেত হতে শুরু করেন।

জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্র শিবিরের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের পাশাপাশি বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার হাজার হাজার মানুষের উপস্থিতিতে বেলা ২টার আগেই ঐতিহাসিক আলিয়া ময়দান লোকে লোকারণ্য হয়ে যায়।

জানাজার পুর্বে সিলেট জেলা ও মহানগর জামায়াত নেতৃবৃন্দ বক্তব্যে উপস্তিত মুসল্লীগণের কেউ কেউ হাউমাউ করে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। বেলা আড়াইটায় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় ইমামতি করেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সাবেক এমপি অধ্যক্ষ মাওলানা ফরিদ উদ্দীন চৌধুরী।

জানাজা পূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে জামায়াত নেতৃবৃন্দ বলেন, ‘কোনো অপরাধ নয়, জাতিকে নেতৃত্বশূন্য করতেই আদর্শিক কারণেই আমীরে জামায়াতকে শহীদ করা হয়েছে। বাংলাদেশের সবুজ ভু-খণ্ডে কোরআনের সমাজ বিনির্মাণের মধ্য দিয়ে শহীদ মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীকে হত্যার বদলা নেয়া হবে। ইনশাআল্লাহ।

এসময় তারা জামায়াত কেন্দ্র আহুত বৃহস্পতিবার থেকে ২৪ ঘণ্টার সর্বাত্মক ও শান্তিপূর্ণ হরতাল পালনের জন্য সিলেটবাসীর প্রতি আহ্বান জানান।

জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদের সদস্য ও সিলেট মহানগর জামায়াতের আমীর অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের এর সভাপতিত্বে ও সেক্রেটারী মাওলানা সোহেল আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত জানাজাপূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জামায়াতের কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট বিভাগীয় আঞ্চলিক দায়িত্বশীল অধ্যাপক ফজলুর রহমান, কেন্দ্রীয় মজলিসে শুরা সদস্য ও সিলেট জেলা দক্ষিনের আমীর মাওলানা হাবীবুর রহমান, কেন্দ্রীয় সজলিসে শুরা সদস্য ও সিলেট জেলা উত্তরের আমীর হাফিজ আনোয়ার হোসাইন খান ও ইসলামী ছাত্র শিবিরের কেন্দ্র্রীয় প্রকাশনা সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম।

সভাপতির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় কর্মপরিষদ সদস্য ও সিলেট মহানগরী আমীর অ্যাডভোকেট এহসানুল মাহবুব জুবায়ের বলেন- কথিত মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচারের নামে এদেশ থেকে ঈমানদার, দ্বীনদার নেতৃত্ব, ইসলাম ও ইসলামি আন্দোলনকে নির্মূল করতেই একের পর এক জাতীয় নেতৃবৃন্দকে শহীদ করা হচ্ছে।

চট্টগ্রামের প্যারেড মাঠ

চট্টগ্রামের প্যারেড মাঠ

চট্টগ্রামের প্যারেড মাঠ

চট্টগ্রাম মহানগরীর চকবাজার এলাকায় ব্যাপক ককটেল বিস্ফোরণ ও ফাঁকা গুলি চালিয়ে ছাত্রলীগ আতঙ্ক সৃষ্টি করলেও বুধবার দুপুর দেড়টায় চকবাজার এলাকায় গায়েবানা জানাজায় হাজার হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত হয়।

ছাত্রলীগের হামলা ও গুলির পরও হাজার হাজার মানুষ নিজামীর গায়েবানা জানাজায় অংশ নেয়।

রাজশাহীতে জানাজা
রাজশাহী মহানগরীর হেতেমখাঁ গোরস্থান এলাকায় মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর গায়েবানা জানাজায় অংশ নেয় হাজার হাজার জনতা।

এরপর জানাজা শেষে পুলিশের সাথে শিবির কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। পুলিশ এসময় গুলি করে শিবিরকর্মীদের ছত্রভঙ্গ করে।

বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে এ সংঘর্ষ ঘটে। এঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়। এ ঘটনায় ৮ শিবিরকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

জামায়াতের মোবারকবাদ

এদিকে, ‘সরকারের বাধা-বিপত্তি উপেক্ষা করে’ দেশে এবং প্রবাসে লক্ষ লক্ষ মানুষ মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর নামাজে জানাযায় এবং গায়েবানা নামাজে জানাযায় অংশগ্রহণ করে তার জন্য দোয়া করায় সকলকে মুবারকবাদ জানিয়েছে সংগঠনটি।

বুধবার বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান এই মোবারকবাদ জানান।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘শহীদ মাওলানা মতিউর রহমান নিজামী তার অবদানের জন্য এ দেশের জনগণের হৃদয়ে চিরদিন স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।’

আরো বলেন, ‘সরকারের বাধা, বিপত্তি, রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে দেশে ও প্রবাসে লক্ষ লক্ষ জনতা শহীদ মাওলানা মতিউর রহমান নিজামীর নামাজে জানাযা ও গায়েবানা নামাজে জানাযায় শরীক হওয়া- প্রমাণ করে যে, তিনি একজন নির্দোষ মানুষ ছিলেন।’

শনিবারের চিঠি/আটলান্টা/ মে ১২, ২০১৬

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১১:২৪ পূর্বাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১২ মে ২০১৬

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com