তিনি কখনো সংবাদিক, কখনো পুলিশ

শুক্রবার, ১৫ জুলাই ২০১৬

তিনি কখনো সংবাদিক, কখনো পুলিশ

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে বিভিন্ন পরিচয় দিয়ে প্রতারণা করার অভিযোগে শাহীন মিয়া (৩০) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। গতকাল বুধবার রাতে কমলপুরের ঈদগাহ মাঠের কাছ থেকে তাঁকে আটক করা হয়।

আটক শাহীন ভৈরব শহরের কমলপুর ওলাইক্কাহাটির বাসিন্দা। পুলিশ জানিয়েছে, কখনো পুলিশ কর্মকর্তা, কখনো সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে ছিনতাই, চাঁদাবাজি, প্রতারণা ও নারীর সম্ভ্রমহানির চেষ্টার অভিযোগ আছে শাহীন মিয়ার বিরুদ্ধে।


পুলিশ ও স্থানীয় বাসিন্দারা জানায়, শাহীন দীর্ঘদিন ধরে মোটরসাইকেলের পেছনে কখনো সাংবাদিক, কখনো পুলিশের স্টিকার লাগিয়ে মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করছিল। যথাযথ প্রমাণ এবং সুনির্দিষ্ট অভিযোগ না থাকায় পুলিশ তাঁকে আটক করতে পারছিল না।

গত রোববার রাত ৮টার দিকে কুলিয়ারচর এলাকার চার ব্যবসায়ী জুয়েল মিয়া, অন্তর মিয়া, জামান ও ওমর শরীফ ভৈরব বাজারে মালামাল নিতে এলে শহরের পৌরসভা রোডে পুলিশ পরিচয়ে তাদের আটক করে শাহিন এবং তাঁর দুই সহযোগী ইব্রাহিম ও শারমিন। এ সময় নিজেদের পকেট থেকে কয়েকটি ইয়াবা বড়ি বের করে ওই ব্যবসায়ীদের মাদক ব্যবসার অভিযোগে থানায় নিয়ে যাওয়ার ভয় দেখায়। পরে তাঁদের তল্লাশি করে নগদ ২৫ হাজার ৩০০ টাকা ও মোবাইল সেট ছিনিয়ে নেয়।

একই দিন রাতে কলেজ রোডের চেরাগ আলী নামের এক ব্যক্তির বাসায় পুলিশ ও সাংবাদিক পরিচয়ে সহযোগীদের নিয়ে চাঁদা দাবি করে শাহীন ও তাঁর লোকজন। এ সময় চেরাগ আলীর স্ত্রীর সম্ভ্রমহানির চেষ্টার অভিযোগ ওঠে। চেরাগ আলী বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ শাহীনকে আটক করতে নামে। পরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. শফিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ গতকাল গভীর রাতে শহরের কমলপুর ঈদগাহ মাঠের কাছের রাস্তা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করে।

এ ব্যাপারে ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. বদরুল আলম তালুকদার এনটিভি অনলাইনকে জানান, আটক শাহীন দীর্ঘদিন ধরে পুলিশ ও সাংবাদিক পরিচয়ে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করছিল। একজন ভুক্তভোগীর অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে আটক করে পুলিশ।
শনিবারের চিঠি/ আটলান্টা/ জুলাই ১৫, ২০১৬

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১০:০১ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ১৫ জুলাই ২০১৬

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com