তারেক রহমানের ও আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা

বৃহস্পতিবার, ০৮ জানুয়ারি ২০১৫

তারেক রহমানের ও আব্দুস সালামের  বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার মামলা

 

শনিবার রিপোর্টঃ বাংলাদেশে পুলিশ আজ বিএনপির সিনিয়র ভাইস-চেয়ারম্যান তারেক রহমান এবং একুশে টেলিভিশনের চেয়ারম্যান আবদুস সালামের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগ এনে মামলা করেছে। বিবিসি বাংলা


এর একদিন আগেই বাংলাদেশের গণমাধ্যমে তারেক রহমানের বক্তব্য প্রচারে নিষেধাজ্ঞা আরোপের জন্য সরকারকে নির্দেশ দেয় আদালত।

তেজগাঁও থানায় করা এই মামলায় মি. রহমান ও মি. সালামের বিরুদ্ধে যোগসাজশ করে মিথ্যা ও বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচারের অভিযোগ আনা হয়।

তেজগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাজহারুল ইসলাম বিবিসি বাংলাকে জানিয়েছেন, তারেক রহমান ও আবদুস সালামের বিরুদ্ধে যোগসাজশ করে ‘মিথ্যা, বানোয়াট, ভিত্তিহীন, উদ্দেশ্যমূলক ও বিভ্রান্তিকর তথ্যাদি প্রচার করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বের প্রতি হুমকি সৃষ্টির’ অভিযোগ আনা হয়েছে।

মি. ইসলাম জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্ররণালয়ের অনুমতি নিয়েই এ মামলা করা হয়।

তিনি জানান, পুলিশ এখন এ মামলার তদন্তকাজ শুরু করবে।

তারেক রহমানের পক্ষের আইনজীবী এবং বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা খন্দকার মাহবুব হোসেন এই মামলাকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যমূলক বলে বর্ননা করে বলেছেন, তারা আইনী এবং রাজনৈতিকভাবেই এর মোকাবিলা করবেন।

একাধিক মামলায় অভিযুক্ত তারেক রহমান বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবং দলটির প্রতিষ্ঠাতা সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ছেলে। গত সেনাসমর্থিত তত্বাবধায়ক সরকারের সময় আটকাবস্থা থেকে মুক্তিলাভের পর বেশ কয়েকবছর ধরেই তিনি চিকিৎসার জন্য লন্ডনে অবস্থান করছেন।

লন্ডন থেকে দেয়া মি. রহমানের কিছু সাম্প্রতিক বক্তব্য বাংলাদেশে একুশে টেলিভিশনের মাধ্যমে প্রচারিত হলে তা নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক ও উত্তেজনা সৃষ্টি হয়।

একুশে টেলিভিশনের চেয়ারম্যান আবদুস সালামকে এর পরপরই তার কার্যালয়ে থেকে নিরাপত্তা বাহিনী আটক করে, এবং এর পর পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে করা আগেকার এক মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়।

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৭:৪০ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ০৮ জানুয়ারি ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com