ঝালকাঠিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষঃ আহত ৫

সোমবার, ১৮ মে ২০১৫

ঝালকাঠিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষঃ আহত ৫

 

ঝালকাঠিঃ ঝালকাঠিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও দফায় দফায় সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন মিঠুর বাসায় হামলা ও ভাঙচুর করেছে ছাত্রলীগের অপর গ্রুপ। এতে ৫জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ৩ জন বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আজিম তালুকদারকে আটক করেছে পুলিশ। রবিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটেছে।


জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন উপলক্ষে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সৈয়দ মিলন সমর্থক ও জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন মিঠুর সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

রবিবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনের এঘটনার সূত্রধরে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মিলন সমর্থক সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মৌসুম বাসস্ট্যান্ড থেকে বাস যোগে ঢাকা যাবার সময় মিঠুর সমর্থকরা তাকে মারধর করতে শুরু করে। খবর পেয়ে মিলন সমর্থকরা মৌসুমকে উদ্ধার করতে গেলে দু’গ্রুপে দফায় দফায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এসএম আল আমিন, ছাত্রলীগ নেতা নজরুল ইসলাম, মৌসুম, জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন মিঠুর বাবা এনছাব আলী, পথচারী যুবরাজ আহত হয়েছে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আ. রকিব এবং সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। আহতদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় নজরুলকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। অপর আহত আল আমিন ও মৌসুম শেবাচিম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এনছাব আলী ও যুবরাজ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

পুলিশ অভিযান চালিয়ে সংঘর্ষে জড়িত সন্দেহে জেলা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আবুল ফজল আজিম তালুকদারকে পূর্ব চাঁদকাঠি থেকে আটক করেছে।

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ১৮ মে ২০১৫

প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যাবর্তন দিবসে ছাত্রলীগের মধ্যে সংঘর্ষঃ

পিস্তল ঠেকিয়ে কাগজপত্র ছিনিয়ে নিল ছাত্রলীগ

 

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৫:০৯ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৮ মে ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com