জাতিসংঘের সামনে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির শেখ হাসিনা বিরোধী বিক্ষোভ

সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬

জাতিসংঘের সামনে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপির শেখ হাসিনা বিরোধী বিক্ষোভ

সাবেদ সাথী, নিউ ইয়র্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনের ভাষণ দেওয়ার সময় জাতিসংঘ সদর দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মিরা। নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় বুধবার বিকেল সাড়ে

৩টা থেকে যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি ও সকল অঙ্গসংগঠন জাতিসংঘ সদর দপ্তরের সামনে শেখ হাসিনা ও বর্তমান সরকার বিরোধী বিভিন্ন শ্লোগান দেন। সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘ সাধারন অধিবেশনে ভাষণ দেন।
একই সময়ে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে স্বাগত জানিয়ে পাশাপাশি অবস্থান নিলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সফরসঙ্গী মন্ত্রী ও সরকারি কর্মকর্তারা এ সময় সম্মেলন কেন্দ্রে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জাতিসংঘের ভেতর অবস্থান করছিলেন। বেশ কিছু প্রবাসীকে পর্যবেক্ষক হিসেবে সম্মেলন কেন্দ্রে অবস্থান নিতে দেখা যায়। জাতিসংঘ সদর দপ্তর সংলগ্ন এলাকায় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের কয়েক শত নেতা-কর্মির সমাগম ঘটে। তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে ‘স্বৈরাচার’ ও ‘গণবিরোধী’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন।


এদিকে বিএনপির বিক্ষোভের মুখে আওয়ামী লীগের লোকজনের উপস্থিতি ছিল খুবই কম। জানা গেছে, দলীয় কোন্দলের কারণে অনেকেই বিএনপির সমাবেশ প্রতিহত আহবান করেও ঘটনাস্থলে আসেনি। বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে আওয়ামী লীগের আরও কিছু নেতা-কর্মী বিক্ষোভরত এলাকায় জড়ো হন। তবে তাঁদের প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে দেওয়া স্লোগান বিএনপির ব্যাপক স্লোগানের মুখে চাপা পড়ে যায়। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অনির্বাচিত ও অবৈধ প্রধানমন্ত্রী উল্লেখ করে বিএনপি নেতারা শেখ হাসিনাকে অবাঞ্চিত ঘোষনা করেন। বিক্ষোভ সমাবেশে বিএনপি নেতারা বলেন, গত ৫ জানুয়ারি অগণতান্ত্রিক ও প্রহসনের নির্বাচনে নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রীর দাবিদার শেখ হাসিনার ভাষণ দেওয়ার কোনই অধিকার নেই। কারণ তিনি জনগণের ভোটে নির্বাচিত হননি। যুক্তরাষ্ট্রের যেখানেই হাসিনা সেখানেই

bnp-demos-02প্রতিরোধ আন্দোলন সর্বাত্মক ভাবেই সফল হয়েছে বলে জানান বিএনপি নেতারা। তাঁরা বলেন, দেশের সাধারন মানুষকে খুন গুম আর ভয়াবহ আতংকের মধ্যে রেখে জাতিসংঘে এসে শান্তির কথা বলে বিশ্ববাসীর কাছে মিথ্যাচার করছে শেখ হাসিনা। বক্তারা বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার অনির্বাচিত ও অগণতান্ত্রিক সরকার। তাঁরা দেশের বিরোধী দলের নেতাকর্মিদের উপর জেল-জুলুমসহ হত্যার রাজনীতি করছে। এ বিক্ষোভ সমাবেশে অবিলম্বে শেখ হাসিনার পদত্যাগ ও তত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবি জানান নেতারা।
বিক্ষোভ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রিয় কমিটির সহ আন্তর্জাতিক সম্পাদক ও কন্ঠশিল্পী বেবী নাজনীন,  বিএনপি নেতা যথাক্রমে ডা.মজিবুর রহমান, জিল্লুর রহমান জিল্লু, প্রফেসর দেলোয়ার হোসেন, গিয়াস আহমেদ,শরাফত হোসেন বাবু, আলহাজ্ব সোলায়মান ভুঁইয়া, আখতার হোসেন বাদল,মোস্তফা কামাল পাশা বাবুল, আব্বাস উদ্দিন দুলাল, জসীম উদ্দিন ভুইয়া, গোলাম ফারুক শাহীন, পারভেজ সজ্জাদ, মতিউর রহমান লিটু, হাবিবুর রহমান সেলিম রেজা, মাওলানা আতিকুর রহমান, সাঈদুর রহমান সাঈদ, ভিপি জসিম, এম এ খালেক আকন্দ, আশরাফ হোসেন, শাহ ফরিদ,  সৈয়দ বদরে আলম সাইফুল, সোহরাব খান, ইমরান চাকলাদার, রফিকুল হক, কামাল হোসেন, আলমগীর কবির, মাজহারুল ইসলাম, মো. মোশারফ হোসেন, মো. আলমগীর হোসেন, রুহুল আমিন নাসির, নীরা রাব্বানী, শিরিন বেগম, খন্দকার রেজোয়ান, আরিফ আহম্মেদ, আরিফুল ইসলাম তুহিন, আলমগীর মৃধা, আমিনুর রহমান, মাসুম বিল্লাহ, মো: মহসিন, রুবেল গাজী, জাফর ফরাজী, জাহিদ হায়দার বিশ্বাস, কামাল উদ্দিন দিপু, সিরাজুল ইসলাম ডালী, মাসুদ হোসেন, শাহাদাৎ হোসেন রাজু, হেলাল উদ্দিন, মাহমুদুর চৌধুরী, বাসেত রহমান, মার্শাল মুরাদ, আবু সাঈদ আহমদ, সাঈদুর রহমান, রেজাউল করিম রিজু, মো. নান্নু, গিয়াস মজুমদার, শাহ্‌ আলম, আবু সুফিয়ান, এবাদ চৌধুরী, আতিকুল হক আহাদ, এমলাক হুসেন ফয়সল, মিজানুর রহমান মিজান, সাইফুর খান হারুন, রেজাউল আহাদ ভুঁইয়া, নাসিম খান, কাজী আমিনুল ইসলাম স্বপন, ডঃ তারেক, উত্তম বণিক, রাজীব আহমেদ, জীবন শফিক, নাসিম আহমদ, ছাইদুর খান ডিউক, এবিএম সিদ্দিক, আরশাদ খান, মো. হোসেন, ফজলে রাব্বী রাজীব, মো. কাউসার ও তৌফিক মিয়া প্রমুখ।
এছাড়াও বিএনপির চেয়ারপার্সনের সাবেক বৈদেশিক উপদেষ্টা ও বিএনপির বিশেষ দূত জাহিদ এফ সরদার সাদী, বিএনপির সাবেক কেন্দ্রিয় নেতা কামাল সাঈদ মোহন সহ অসংখ্য বিএনপি নেতাকর্মিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দরা প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে এবং বিএনপির সমাবেশ প্রতিরোধে বিক্ষোভ করেছে। উভয় দল মুখোমুখি অবস্থান নেওয়ায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। বিএনপির সমাবেশ থেকে আ.লীগ সমাবেশের দিকে কেবা কারা ডিম ছুঁড়ে মারলে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।
সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য মনিরুল ইসলাম, নিউ ইংল্যান্ড শাখার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ইউসুফ চৌধুরী, সা. সম্পাদক ইউসুফ ইকবাল, ওয়াশিংটন মেট্রোর সভাপতি সাদেক খান, সা. সম্পাদক মাহমুদুন্নবী বাকি, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগের আকতার হোসেন, এম এ সালাম, এম এ জলিল, আব্দুস সামাদ আজাদ, আইরিন পারভিন, আব্দুল হাসিব মামুন, আব্দুর রহিম বাদশা, মাহবুবুর রহমান টুকু, মমতাজ শাহানাজ, মোর্শেদা জামান, আশরাফুজ্জামান ও তৈয়বুর রহমান টনিসহ অনেকেই আওয়ামী লীগের উক্ত সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন।

শনিবারের চিঠি/ আটলান্টা / সেপ্টেম্বর ২৬,  ২০১৬

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৭:২৭ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৬

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com