জর্জিয়ায় বাঙালি মালিকানাধীন আরো একটি গ্রোসারি ষ্টোরের যাত্রা শুরু

রবিবার, ২৯ আগস্ট ২০২১

জর্জিয়ায় বাঙালি মালিকানাধীন আরো একটি গ্রোসারি ষ্টোরের যাত্রা শুরু
যৌথ মালিকানাধীন ৪ মালিকের দুই মালিক যথাক্রমে মোহাম্মদ রহমান রুবন ও ইকবাল হোসেন [ ছবিঃ শনিবারের চিঠি ]

প্রবাসে বাংলাদেশি খাবারের স্বাদ দিতে যাত্রা শুরু করেছে বাংলাদেশি মালিকানাধীন নতুন গ্রোসারি বা মুদি দোকান রাহমানিয়া হালাল মিট ও গ্রোসারী ষ্টোর । জর্জিয়ার বাংলাদেশি অধ্যুষিত বিফোর্ড হাইওয়ে শ্যাম্বলী শহরে   আজ ২৮ আগষ্ট রবিবার বর্ণাঢ্য আনুষ্ঠানিকতায় নতুন এই গ্রোসারির উদ্বোধন হয়েছে।

যৌথ মালিকানাধীন এ মুদি দোকানের মালিকরা হলেন, মোহাম্মদ রহমান রুবন, আরিফ আহমেদ, মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন ও মোহাম্মদ মহিউদ্দিন শামিম ।


বাংলাদেশি সুস্বাদু পদ্মার ইলিশের প্রচুর মজুদ রয়েছে দোকানে [ ছবিঃ শনিবারের চিঠি ]

তরুণ উদ্যোক্তা মোহাম্মদ রহমান রুবন বলেন মূলধারার মান ও গুণসম্পন্ন খাদ্যদ্রব্য সরবরাহের অঙ্গীকার নিয়ে নতুন এই গ্রোসারি স্টোর শুরু করেছেন বলে শনিবারের চিঠিকে জানান ।
এই প্রসঙ্গে আরিফ আহমেদ বলেন, প্রবাসে গুণ ও মানসম্মত দেশীয় স্বাদের খাদ্য দ্রব্যের চাহিদা প্রচুর। সেই চাহিদা পূরণের অঙ্গীকার নিয়েই আমরা যাত্রা শুরু করেছি। তিনি বলেন, পণ্যের পাশাপাশি গ্রাহক সেবার প্রতিও আমাদের অখণ্ড মনোযোগ থাকবে।

জর্জিয়ার মূলধারার সুপার স্টোরগুলোতে গিয়ে ভোক্তারা যেমন এক ধরনের তৃপ্তি নিয়ে কেনাকাটা করেন, সেই তৃপ্তি নিশ্চিত করার ব্যাপারেও আমাদের ঐকান্তিক চেষ্টা থাকবে বলে জানান আরো এক মালিক মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন। দোকানের আরেক মালিক মোহাম্মদ মহিউদ্দিন শামিম ব্যস্ততার কারণে দোকানের বাইরে থাকায় তার কোন মন্তব্য জানা যায়নি ।

উদ্ধোধনী দিনে বাঙালি কম্যুনিটির পরিচিত জনের অনেকে উপস্থিত ছিলেন। যেমন মোহাম্মদ জসিম উদ্দিন, আলহাজ শুকুর মিন্টু, ডিউক খান, ফারুক হোসেন, ইব্রাহিম রহমান প্রমুখ । উদ্ধোধনীর সারাদিন সকল খরিদ্দারের জন্য ছিল সৌজন্যমূলক চিকেন বিরিয়ানীর ভুড়ি ভোজ ও নানান জাতীয় মিষ্টান্ন ।

জনৈক খরিদ্দার আশিষ বিশ্বাস হাসকৃত মূল্যে ইলিশ মাছ কিনে বেজায় খুশি [ ছবি শনিবারের চিঠি ]

মুদি দোকানের মালিকবৃন্দ  বলেন, রাহমানিয়া হালাল মিট ও গ্রোসারী ষ্টোর একটি বাংলাদেশি প্রতিষ্ঠান। আপনাদের সহযোগিতাই এই প্রতিষ্ঠানকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে।

বাঙালির প্রিয় মাছ ইলিশ উদ্ধোধনী দিনে হাসকৃত মূল্যে ১১ ডলার নিরানব্বইয় সেন্টে প্রতি পাউন্ড বিক্রি হয়। যার নিয়মিত বাজার মূল্য ১৫ থেকে ১৭ ডলার প্রতি পাউন্ড । এ ছাড়াও বাসমতী চাল,মসুর ডাল, শাক সব্জি  বিভিন্ন প্রকার মিষ্টান্নও হাসকৃত মূল্যে বিক্রয় হয়। শুক্রবার বেলা ১ টা থেকে ২ টা পর্যন্ত জুম্মার নামাযের বিরতি ছাড়া প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত কেনাবেচার জন্য দোকান খোলা থাকবে ।

উল্লেখ্য জর্জিয়ায় রাহমানিয়া ছাড়াও বাংলাদেশ ষ্টোর, বেঙ্গল ষ্টোর, আল ফালাহ হালাল মিট ও গ্রোসারী নামে আরো কয়েকটি বাংলাদেশি মালিকানাধীন মুদি দোকান রয়েছে । তবে বড় সরো কোন মুদি দোকান নাই । শাক সব্জী, মসলাপাতিসহ বড় সরো সব মুদি দোকান ভারত, চীন, ভিয়েতনাম, কোরিয়ানদের দখলে ।

 

 

 

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৯:৩৯ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২৯ আগস্ট ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com