ছয় মাসের শিশুর পেটে আরেকটি শিশু

রবিবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৫

ছয় মাসের শিশুর পেটে আরেকটি শিশু

 

ঢাকা: ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ছয় মাসের শিশুর পেটে আরেকটি শিশুর অস্তিত্ব পাওয়া গেছে। শিশুটির নাম সাজিয়া জান্নাত। তার বাবার নাম শফিকুল ইসলাম। তিনি একটি বাইসাইকেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন।


সাজিয়ার মায়ের নাম আঞ্জু খাতুন (২০)। তাদের গ্রামের বাড়ি জামালপুরের গোপালপুরে। বর্তমানে তারা থাকেন গাজীপুরের নতুন বাজার গরগরিয়া গ্রামে।

আঞ্জু খাতুন জানান, গত ১০ সেপ্টেম্বর তার একটি কন্যা সন্তান জন্মগ্রহণ করে। জামালপুরের নান্দিনা আনোয়ার হাসপাতালে তার জন্ম হয়।

শিশুটির বয়স যখন চারমাস তখন তার পেটে একটি চাকা সাদৃশ কিছু একটা অনুভব করেন তার মা। পরে তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে চিকিৎসকরা পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে জানতে পারে শিশুটির পেটে একটি ভ্রুণ বেড়ে উঠছে।

পরে তাকে গত ১৩ মার্চ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। শিশু সার্জারি বিভাগের অধ্যাপক ডা. আশরাফুল হক কাজলের অধীনে শিশুটিকে ভর্তি করা হয়।

ডা. আশরাফ সাংবাদিকদের বলেন, ‘শিশুটিকে পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে আমরা দেখতে পেয়েছি শিশুটির পেটে থাকা ভ্রুণটির মাথা আছে কিন্তু খুলি নেই। এবং হাত-পা আছে। তবে মৃত অবস্থায়।’

তিনি বলেন, ‘আমরা আগামী বুধবার তাকে অপারেশন করবো। কিন্তু শিশুটি ঠাণ্ডাজনিত রোগে ভুগছে। সে সুস্থ হলেই একটি বোর্ড গঠন করে অপারেশন করা হবে।’

তিনি জানান, রেকর্ড অনুযায়ী বিশ্বে এমন ঘটনা ৫৯টি হয়েছে। আমাদের এই ঘটনাটি নিয়ে তা হবে ৬০টি।

এর আগেও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ৪০ বছর বয়সী এক নারীর ক্ষেত্রে এমন ঘটনা ঘটেছিল। এছাড়া চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও এমন ঘটনা ঘটে বলে জানান ড. আশরাফ।

বর্তমানে এই শিশুটিকে সার্বক্ষণিক দেখভাল করছেন শিশু ওয়ার্ডের সহকারী রেজিস্টার সিফাত জেরিন খান।

 

শনিবারের চিঠি/ আটলান্টা / ০৫ এপ্রিল ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৫:৪৪ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৫ এপ্রিল ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com