চাঁদা না দেওয়ায় সাবেক ফুটবলারকে কুপিয়ে খুন করল যুবলীগ কর্মী

মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০১৫

চাঁদা না দেওয়ায় সাবেক ফুটবলারকে কুপিয়ে খুন করল যুবলীগ কর্মী

 

নরসিংদীঃ চাঁদাবাজির প্রতিবাদ করায় জাতীয় দলের সাবেক ফুটবলার নাদির বিন কামরুলকে (২৮) কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। জখম করা হয়েছে তাঁর বাবাকে। সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার চরনগরদী এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।


হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ সাইফুল ইসলাম নামের একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তিনি পলাশ উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি সুলতান মুহুরির ছেলে ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীনের ভাই। নাদির চরনগরদী গ্রামের কামরুলের ছেলে। তিনি ঢাকার আরামবাগ ক্রীড়া চক্রের ফুটবল দলে খেলতেন।

নাদিরের বাবা কামরুল এনটিভি অনলাইনকে জানান, তাঁর একটি ধানের চাতাল রয়েছে। কয়েকদিন ধরে ছাত্রলীগ নেতা শাহীন এসে তাঁর কাছে চাঁদা দাবি করছিলেন। তিনি চাঁদা দিতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন। সন্ধ্যায় শাহীন এসে তাঁর কাছে আবার চাঁদা দাবি করেন। তিনি দিতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন। এ নিয়ে তর্ক-বিতর্কের একপর্যায়ে ছেলের বয়সী শাহীন তাঁর কলার ধরে মারধর করেন। খবর পেয়ে তাঁর ছেলে নাদির এসে শাহীনকে একটি চড় দেয়।

এরপর শাহীনের দুই ভাই সাইফুল ও তুহিন এসে নাদিরের ডান উড়ুতে কোপ দেয়। তাঁকেও জখম করে। এতে নাদিরের প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। ঢাকার হাসপাতালে নেওয়ার পথে নাদিরের মৃত্যু হয়। কামরুলের বাবা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

এদিকে এই ঘটনার প্রতিবাদে চরনগরদী গ্রামের লোকজন সুলতান মুহুরির বাড়িঘর ভাঙচুর করতে যান। খবর পেয়ে পুলিশ সদস্যরা গিয়ে তাঁর বাড়ি ঘেরাও করে রেখেছেন। যোগাযোগ করা হলে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম আজাদ বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে সাইফুলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। অন্য অভিযুক্তদের ধরার চেষ্টা চালাচ্ছি।’

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ২৬ মে ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫১ পূর্বাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com