কবিতা

খেলাঘর

শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

খেলাঘর

কোন দেশের মানুষ আমরা কোন দেশেতে থাকি,
আপন ফেলে পরকে আমরা আপন বলে ডাকি।

পর কখনও হয় না আপন, আপন হয় না পর,
মাঝখানে যে ঝগড়া – পীরিত স্বার্থের খেলাঘর।


মানুষের মাঝেই মানুষ খুঁজি কে আপন কে’বা পর,
সন্ন্যাসী মুসাফির রঙিন বেশে খুঁজি আপন ঘর।

যেমন করে বারংবার আমি ভাবি তেমন করে নয়,
যেমন করে তোমরা ভাবো সেখানটাতেই ভয়।

পুরুষ পাগল রূপ লাবণ্যে, নারীর দৃষ্টি ধনে,
স্বার্থ ছাড়া, আর্থ ছাড়া, প্রেম বাঁচে না মনে।

একাকিত্বে মনটা নীরবে কাঁদে ছোট্ট একটা ঘরে,
শব্দ যেন হয়েছে জব্দ, আজ অনুভূতির অগোচরে।

ধুলো তো আমার মুখে ছিল চারি পাশে ধরে,
আয়না পরিষ্কার করে গেলাম সারা জীবন ভরে।

শিল্পী করে শিল্পের ধ্যান, ওই প্রস্ফুটিত কুসুম দেখে,
যে বেদনায় কুসুম ফুটে তার খবর কি কেউ রাখে।

রোজনামচায় কাহিনীগুলো ভেসে অলিতে -গলিতে,
খুঁজে ফিরি নিজেকে পড়ন্ত বিকেলের শেষ আলোতে।

নিউইয়র্ক।

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১২:৫৩ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com