খুলনায় এক ইভটিজিং এর ৬মাস দন্ড

শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

খুলনায় এক ইভটিজিং এর ৬মাস দন্ড

khulnaশারমিনা রহমান, খুলনাঃ নগরীর সরকারি করোনেশন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী চাঁদনী বখাটের অব্যাহত উত্যক্তের যন্ত্রণায় আত্মহত্যায় বাধ্য হয়। এ ঘটনার পর রোববার স্থানীয় প্রশাসন খুলনা নগরীতে ইভটিজারদের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি তৎপরতা শুরু করে। অভিভাবকদের দেয়া তথ্য অনুযায়ি রোববার দুপুর দেড়টার দিকে নতু্নবাজার কাস্টম ঘাট এলাকায় ফাতেমা স্কুলের সামনে র‌্যাবের সহযোগিতায় জেলা প্রশাসন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে।

র‌্যাব-৬ এর স্পেশাল কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এনায়েত হোসেন মান্নান জানান, এ সময়ে অপু ঘোষ নামক একজন ইভটিজারকে হাতে নাতে ধরা হয়। উপস্থিত ছাত্রী ও অভিভাবকগনের সাথে কথা বলা হয়।


উপস্থিত কয়েকজন ছাত্রী ও অভিভাবকদের মধ্যে লতিফা বেগম, রত্না খাতুন, মার্শেল খোকন, বিউটি আক্তারসহ বেশ কয়েকজন জানান তাদের সামনে অপু ঘোষ নামে এক যুবক প্রায়ই অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে। বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের সামনে বাজেভাবে নিজেকে উপস্থাপন করে। এসব অভিযোগ সম্পর্কে অপু ঘোষের কাছে জানতে চাইলে সে অবশ্য অভিযোগ স্বীকার করে ক্ষমা চায়।

মোবাইল কোর্ট আইন-২০০৯ এর তফসিলভুক্ত দন্ডবিধি-১৮৬০ এর ধারা-৫০৯ অনুযায়ী অভিযুক্ত আসামী অপু ঘোষকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। আসামীকে সাজা পরোয়ানার মাধ্যমে জেলে প্রেরণ করা হয় যা আজ থেকেই কার্যকর করা হবে।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসন, খুলনার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ জাকির হোসেন। তিনি জানান, নিয়মিত ইভটিজারদের বিরুদ্ধে অভিযান চলবে এবং কঠোরভাবে ইভটিজিং এর মোকাবেলা করা হবে।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ ২০ অক্টোবর , ২০১৭

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ২:১২ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com