খুলনার ডুমুরিয়ায় এক ইউপি মেম্বরের জেল-জরিমানা

বুধবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৪

 

আব্দুল লতিফ মোড়ল, ডুমুরিয়া, খুলনাঃ ডুমুরিয়া উপজেলার মিকশিমিল গ্রামের বাসিন্দা ও রুদাঘরা ইউপি সদস্য বিএনপি নেতা আলতাফ মোড়ল (৪৫)কে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা দিয়েছেন খুলনার বিজ্ঞ অতিরিক্ত চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত। পৃথকভাবে একটিতে ১ বছর কারাদণ্ড ও ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫দিনের কারাদণ্ড। অপর মামলায় ৬ মাসের কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানার


আদেশ দিয়েছেন। সোমবার আসামীদের উপস্থিতিতে বিজ্ঞ বিচারক মোস্তফা পাভেল রহমান এই দন্ডাদেশ দেন। মামলার রায়ে আলতাফকে দণ্ড দেযায় মামলার বাদীকে জীবন নাশের গুমকি দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। আদালত সূত্রে জানা যায় , ২০১৩ সালের ২৩ অক্টোবর, রাত ৮টার দিকে মামলার বাদী আসমা বেগম গরুর খাবার কিনতে মিকশিমিল বাজারে গেলে ওই মেম্বর আলতাফ ও তার অপর এক সহযোগি আসমাকে অশ্লীল কথা বলতে থাকে।

এর প্রতিবাদ করলে আসমাকে তারা মারপিট করে এবং তার পরণের কাপড় ছিড়ে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এই ঘটনায় ওই বছরের ৩ নভেম্বর ভুক্তভোগী আসমা বেগম আলতাফ হোসেনসহ দুইজনকে আসামী করে থানায় মামলা করা হয়। পরে ডুমুরিয়া থানা পুলিশ আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। গত ৬ নভেম্বরও (বৃহস্পতিবার ) ছিল ওই মামলার যুক্তিতর্ক শুনানী। সেদিন বিজ্ঞ বিচারক তাদেরকে কারা হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর ১১দিন পর গতকাল সোমবার বিজ্ঞ বিচারক মোস্তফা পাভেল রহমান মামলার আসামী আলতাফ মোড়লকে মামলার ৩৫৪ ধারায় ১ বছর কারাদণ্ড ও ২ হাজার টাকা জরিমানা অনাদাযে ১৫দিনের কারাদণ্ড। ৩২৩ ধারায়৬ মাসের কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন। মামলার অপর আসামীকে ৬মাসের কারাদণ্ড ও ১ হাজার টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন।মামলার রায়ে বাদী আসমা বেগম সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, আমি ন্যায় বিচার পেয়েছি।

তবে আসামীরা ধূরন্ধর প্রকুতির হওয়ায় আমাকে দেখে নেয়ার গুমকি দিয়েছে। বর্তমানে আমি চরম নিরাপত্ত্বাহীনতায় ভূগছি।এদিকে বিএনপি নেতা আলতাফের কারাদন্ডে স্থানীয় কতিপয় আওয়ামী লীগের নেতা মুষড়ে পড়েছেন বলে জানা গেছে।

তাদের মধ্যে অনেকেই মামলাটিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা চালায়। কিন্তু সে চেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে।

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১১:১৩ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৪

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com