ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে পুলিশের চাঁদাবাজির অভিযোগ

রবিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৫

ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে পুলিশের চাঁদাবাজির অভিযোগ

 

ঢাকা: ক্রসফায়ারে হত্যার ভয় দেখিয়ে চাঁদা দাবির অভিযোগে মিরপুর থানার দুই উপপরিদর্শকসহ (এসআই) পাঁচ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন শিখর পরিবহনের মালিক মো. ইউসুফ মিয়া।


রোববার ঢাকার সিএমএম আদালতের বিচারক আতিকুর রহমানের কাছে এই মামলাটি দায়ের করা হয়। বিচারক বাদীর জাবানবন্দী গ্রহণ করে মামলাটির বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

মামলার আসামিরা হলেন- মিরপুর মডেল থানার এসআই রফিকুল ইসলাম, এসআই দেলোয়ার হোসেন, কনস্টেবল কামাল, পুলিশের সোর্স মিজানুর রহমান ও লিটন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, গত ১১ এপ্রিল বাদী তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য মিরপুরের আজমল হাসপাতালে ডাক্তারের কাছে গেলে আসামিরা তাকে সেখান থেকে মিরপুর থানায় মামলা আছে বলে মারধর করে মাইক্রোবাসে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়।

পরে তাকে মারধর করে ও ভয়ভীতি দেখিয়ে ডাচ বাংলা বাংকের এটিএম কার্ড ও মানিব্যাগে থাকা ৯ হাজার ৭০০ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় এসআই রফিকুল ইসলাম তার কাছে ১০ লাখ টাকা দাবি করেন, অন্যথায় ক্রসফায়ারে হত্যার হুমকি দেন।

ওইসময় এই আসামি  ইউসুফ মিয়ার স্ত্রীকে ফোন করে ১০ লাখ টাকা আনতে বলেন। স্ত্রী উম্মে তামিমা রুবি স্বামীকে বাঁচানোর জন্য ৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকা এসআই রফিকুল ইসলামের কথামতো এসআই দেলোয়ার হোসেনকে দেন। বাকি টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে মিরপুর থানার জিডি নং-৭৪১/ ১৫ মূলে ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠান।

এরপর গত ১২ এপ্রিল আসামি রফিকুল ইসলাম বাদীর এটিএম কার্ড দিয়ে এটিএম বুথ থেকে ৮ দফায় আরো ১ লাখ টাকা উত্তোলন করেন। গত ১৩ এপ্রিল বাদী আদালত থেকে জামিন পেয়ে এসআই রফিকুল ইসলামের কাছে এটিএম কার্ডটি আনতে গেলে তিনি বাকি টাকা দাবি করেন। টাকা না দিলে এটিএম কার্ডটি দেবেন না বলে জানান। সুত্রঃ বাংলা মেইল

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ১৯ এপ্রিল ২০১৫

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫০ অপরাহ্ণ | রবিবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com