কাছ থেকেও হিলারিকে চিনতে পারল না রেস্তোরাঁর মালিক কর্মচারিবৃন্দ

শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০১৫

কাছ থেকেও হিলারিকে চিনতে পারল না রেস্তোরাঁর মালিক কর্মচারিবৃন্দ

 

hillary-582x363বাংলা প্রেস, নিউ ইয়র্কঃ সাদাসিদে  পোষাকে হঠাৎ একটি রেস্তোরাঁয় প্রবেশ করায় কেউ চিনতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্রের আগামি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে শক্তিধর প্রার্থী হিলারি রডহ্যাম ক্লিনটনকে। ঘটনা ঘটে গত মঙ্গলবার। তিনি ঐদিন আইওয়া অঙ্গরাজ্যে যাওয়ার সময় একটি রেস্তোরাঁয় দুপুরের খাবার খেতে ঢুকে পড়েছিলেন।


হিলারি যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে নতুন একটি অধ্যায়ের সূচনা করতে যাচ্ছেন। নির্বাচিত হলে তিনি হবেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট। তিনি এতটাই প্রভাবশালী, এতটাই জনপ্রিয় যে, বাকি বিশ্বের সচেতন মানুষ মাত্রই চেনেন তাকে। কিন্তু তাকে চিনতে পারেননি যুক্তরাষ্ট্রের এ রেস্তোরাঁয় কেউ। কিন্তু ‘দ্য চিপোটলে’ নামের ওই সাধারণ রেস্তোরাঁয় কেউই তাকে চিনতে পারেননি! পরবর্তীতে নিউ ইয়র্ক টাইমসের একজন প্রতিবেদক রেস্তোরাঁয় কর্তৃপক্ষের কাছে এ বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চান। প্রশ্ন শুনে হতভম্ব হয়ে পড়েন রেস্তোরাঁয় ম্যানেজার। সঙ্গে সঙ্গে তাদের মধ্যে এক রকম আহাজারি শুরু হয়ে যায়। যদি সত্যি হিলারি গিয়ে থাকেন তাদের রেস্তোরাঁয় তাহলে তাকে প্রাণভরে আপ্যায়ন করতেন তারা। শুরু হয়ে যায় সিসিটিভির ফুটেজ যাচাই। দেখা যায়, আসলেই হিলারি গিয়েছিলেন তাদের রেস্তোরাঁয় খাবার কিনতে। সে সময়ে  তার বেশভুষা তেমন আহামরি ছিল না। রেস্তোরাঁয় মালিক তাকে সাধারণ একজন খদ্দের মনে করেছিলেন।

 হিলারি ২০১৬ সালে অনুষ্ঠেয় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেট দলের মনোনয়নপ্রার্থী। নিজের প্রথম নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করতে আইওয়া অঙ্গরাজ্যকেই বেছে নিয়েছেন তিনি। সেখানে যাওয়ার পথেই ওয়াহিও’র একটি  রেস্তরাঁয় দুপুরের খাবার কেনার জন্য থামে তার দলবল। এ সময় স্বয়ং হিলারিই নিজের খাবার কিনেছিলেন ওই ছোট্ট রেস্তরাঁ থেকে। খাবার কেনার সময় হিলারির চোখে গাঢ়  সানগ্লাস ছিল। হয়তো সে কারণেই বোঝা যায়নি তার উপস্থিতি। এ সময় তার পাশেই ছিলেন তার এক ঘনিষ্ঠ সহযোগী। বাইরে ছিলেন সিক্রেট সার্ভিসের এজেন্টরা। দ্য চিপোটলে রেস্তরাঁর ম্যানেজার চার্লস রাইটের সঙ্গে যখন সাংবাদিক যোগাযোগ করেন, তখন তিনি বলেছিলেন, এ রেস্তরাঁয় হিলারি আসার খবর অবশ্যই গুজব! তবে সাংবাদিকদের তার সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখতে বারণ করেন নি তিনি। সেটি যাচাই করে দেখা যায় উজ্জ্বল গোলাপি রঙের পোশাকের হিলারিকে। রাইট বলেন, তার চোখে গাঢ় কালো সানগ্লাস ছিল। তাই তাকে কেবলই একজন সাধারণ মহিলার মতোই  লাগছিল। রেস্টুরেন্টে তখন অনেক খদ্দের খাবার খাচ্ছিলেন তাদের কয়েকজন জানালেন, ওই সময় হিলারি ক্লিনটন খাবার নেয়ার সময় এক ব্যক্তি ছবি তুলছিলেন। তবে এমনকি খদ্দেররাও কেউই বুঝতে পারেননি, কেন ওই ব্যক্তি ছবি তুলছিল! ২৯ বছর বয়সী চার্লস রাইট একজন রিপাবলিকান সমর্থক। তিনি বলেন, হিলারিকে সমর্থন দেয়ার কথা তিনি ভাবছেন না। কিন্তু এতো কাছ থেকে তার সঙ্গে কথা বলার সুযোগ হারিয়ে ফেলাটা বেশ কষ্টদায়ক। এর আগে রবিবার হিলারি ক্লিনটন জানিয়েছিলেন, তার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণা হবে সম্পূর্ণিই প্রতিদিনকার আমেরিকানদের নিয়ে। প্রচারণা শুরুর আগেই কথা ও কাজের প্রতিফলন ঘটালেন তিনি।

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ১৭ এপ্রিল ২০১৫

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ১০:০০ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, ১৭ এপ্রিল ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com