করোনায় নিউইর্য়কে তিন বাংলাদেশি আক্রান্তঃ আতঙ্কে প্রবাসীরা

মঙ্গলবার, ১৭ মার্চ ২০২০

করোনায় নিউইর্য়কে  তিন বাংলাদেশি আক্রান্তঃ আতঙ্কে প্রবাসীরা
প্রতিকী ছবিঃ

নিউইর্য়কে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন তিন প্রবাসী বাংলাদেশি।  তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশে অনীহা প্রকাশ করেছেন পরিবার।

তবে জানা যায় ভাইরাসে আক্রান্তের একজনের বাড়ি ফরিদপুর। আক্রান্ত ৫০ অনুর্ধ্ব বয়সী ফরিদপুরের ওই ব্যক্তি কুইন্সের লংআইল্যান্ডের পার্শ্ববর্তী এক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।লং আইল্যান্ডের হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই ব্যক্তি তথ্য প্রযুক্তি পেশায় নিয়োজিত বলে জানিয়েছেন তার নিকট আত্মীয়। পরিবার জানায় চার সদস্য থাকায় তারা শঙ্কায় আছেন।


অন্যদিকে নগরীর ব্রুকলিনে ৪৬ বছরের বাংলাদেশি নারীসহ দু’জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। ওই আক্রান্ত রোগীরা ব্রুকলিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।আক্রান্ত নারী স্বামীর সঙ্গে ম্যানহাটনে ফুড ভেন্ডিংয়ে কাজ করতেন। অন্যজন গ্রিনক্যাব চালক। তিন বাংলাদেশি করোনায় আক্রান্তের খবরে নিউইর্য়ক প্রবাসীদের মধ্যে কিছুটা শঙ্কা দেখা দিলেও, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। সর্বশেষ খবরে জানা গেছে, নিউইর্য়কে দু’জন মারা গেছেন। এরআগে শুক্রবার নিউইর্য়ক সিটিতে ৮০ বছর বয়সী এক নারীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়, যা করোনায় আক্রান্ত প্রথম রোগীর মৃত্যু। তবে তিনি আগে থেকেই শ্বাসকষ্টের রোগী ছিলেন। এছাড়া শনিবার আরো একজনের মৃত্যুসহ করোনায় আক্রান্ত দুইজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন রাজ্য গর্ভণর এন্ড্রু ক্যুমো। উল্লেখ, নিউইর্য়কে এ পর্যন্ত প্রায় ৬ শতাধিক মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। আর পুরো যুক্তরাষ্ট্রে তিনহাজার মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। যার মধ্যে এ পর্যন্ত ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ১ মার্চ নিউইয়র্কে প্রথম করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সন্ধান পাওয়া যায়। দুই সপ্তাহের মধ্যে নিউইয়র্ক সিটিতে বেড়ে ২৬৯ জনে দাঁড়িয়েছে। আর নিউইয়র্ক স্টেটে এখন পর্যন্ত ৬১৩ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে।

করোনভাইরাসের কারণে নিউইয়র্কে সিটিতে স্কুল সোমবার থেকে বন্ধ রয়েছে এবং কমপক্ষে ২০ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ থাকবে। মেয়র বিল ডি ব্লাসিও রোবববার এ তথ্য জানিয়েছেন। মেয়র বিল ডি ব্লাসিও বলেন, “সবচেয়ে কম বলতে গেলে, এটি একটি খুব ঝামেলার মুহূর্ত। স্কুলগুলো বন্ধ না করায় বাবা-মা এবং শিক্ষকদের অভ্যুত্থানের মুখোমুখি হয়েছিলাম। করোনভাইরাসের ভয়াবহতার কারণে আর কোনও উপায় ছিল না। ২০ এপ্রিলের পর স্কুল খোলার বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে মেয়র জানান। তিনি জানান, নিউইয়র্ক সিটিতে করোনভাইরাসে এপর্যন্ত পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে এবং ৩২৯ জনের ভাইরাসের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা/ মার্চ ১৭, ২০২০

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৬:৫৪ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৭ মার্চ ২০২০

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com