ওবামার কন্যাদের পোষাক নিয়ে সমালোচনা করার হোয়াট হাউসে একজন চাকুরিচ্যুত

রবিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৪

ওবামার কন্যাদের পোষাক নিয়ে সমালোচনা করার হোয়াট হাউসে একজন চাকুরিচ্যুত

 

thanksবর্ণমালা নিউজ, নিউইয়র্কঃ  যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ওবামার দুই কন্যা মালিয়া এবং শাশা এবার পোষাক নিয়ে সমালোচনার শিকার হয়েছে। পোষাক পরিধান নিয়ে তাদের রুচি এবং আভিজাত্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন টেনেসি রাজ্যের রিপাবলিকান কংগ্রেসম্যান স্টিফেন ফিনচারের মহিলা মুখপাত্র এলিজাবেদ লটেন। নম্র , ভদ্র এবং বিনয়ী হিসেবে পরিচিত ওবামা কন্যাদ্বয়কে নিয়ে ফেইসবুকের পাতায় এই সমালোচনায় খুশী হতে পারেননি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সদস্যরা।


মালিয়া এবং শাশা’কে উদ্দেশ্য করে এলিজাবেদ ফেইসবুকে লেখেন ওদের কোনো ‘কাশ’ নেই।     ‘ আভিজাত্য দেখানোর চেষ্টা করো। যেখানটাতে আছো তার প্রতি শ্রদ্ধাশীল হও।’ ফেইসবুকে এ ধরণের মন্তব্য সারা দুনিয়ায় মূহূর্তের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে এলিজাবেদ সমালোচনার মুখে পড়েন। কারণ  মালিয়ার বয়স কেবল ১৫ আর শাশা’র ১২ বছর।

গত বুধবার থ্যাংকস গিভিং ডে উপলক্ষে প্রেসিডেন্ট ওবামা হোয়াইট হাউজে টার্কি পার্টির আয়োজন করেন। যেখাসে ছোট মেয়ে শাশা স্কার্ট পড়া  অবস্থায় ছিলো। আর সে কারণেই তাদের রুচি নিয়ে প্রশ্ন তুলেন এলিজাবেদ। সমালোচকরা বলছেন, ইর্ষান্বিত হয়ে অথবা হতাশা থেকে তিনি এত ছোট বয়সের মেয়েদের পোষাক নিয়ে এ ধরণের মন্তব্য করেছেন।

তার এই মন্তব্য কেবল সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম নয়, যুক্তরাষ্ট্রের মূলধারার মিডিয়াগুলোতেও গুরুত্ব সহকারে প্রকাশ পায়। এলিজাবেদ তার মন্তব্যে আরও বলেন, ‘তাদের পোষাক পরিধানে আরও সতর্ক হওয়া উচিত। তারা যেমন সন্মান পায়, তেমন পোষাকই পরিধান করা দরকার। মদ্যশালায় যাবার মতো পোষাক পরা ঠিক নয়।’

ছোট বয়সের দু’টি মেয়েকে নিয়ে এলিজাবেদের এই মন্তব্যে সারা দুনিয়ায় সমালোচনা শুরু হলে তার পোষ্টটি ফেইসবুক থেকে তিনি সরিয়ে ফেলেন। পরে ক্ষমাও চান তিনি।

এ বিষয়ে অবশ্য হোয়াইট হাউজ  কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি। আর কংগ্রেসম্যান স্টিফেন ফিনচারও কোনো মন্তব্য করেননি।

সোমবার অবশ্য এলিজাবেদকে চাকুরিচ্যুত করা হয় অরুচিকর মন্তব্য সামাজিক মাধ্যমে লেখার কারণ

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:০৪ অপরাহ্ণ | রবিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৪

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com