আল্পস পর্বতমালায় জার্মান যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্তঃ ১৫০ আরোহী নিহত

বুধবার, ২৫ মার্চ ২০১৫

আল্পস পর্বতমালায় জার্মান যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্তঃ ১৫০ আরোহী নিহত

 

আর্ন্তজাতিক ডেস্কঃ ১৫০ জন আরোহী নিয়ে দক্ষিণ ফ্রান্সের আল্পস পর্বতমালায় একটি জার্মান যাত্রীবাহী বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে বিধ্বস্ত বিমানটির কোনো আরোহী আর বেঁচে নেই। মঙ্গলবার বিমানটি স্পেনের বার্সেলোনা থেকে জার্মানির দুসিলদোর্ফে যাচ্ছিল।


বার্তাসংস্থা এএফপি জানিয়েছে, মঙ্গলবার জার্মান লুফথানসা এয়ারলাইনসের সহযোগী প্রতিষ্ঠান স্বল্প বাজেটের জার্মান উইংস এয়ারলাইনসের এ-৩২০ এয়ারবাসটি বার্সেলোনা থেকে দুসিলদোর্ফ যাচ্ছিল। গ্রিনিচ মান সময় সকাল ১০টার দিকে  বিমানটি দক্ষিণ ফ্রান্সের দিগি এলাকায় এলে এটি আল্পস পর্বতমালায় বিধ্বস্ত হয়।

ফরাসি দৈনিক লা মঁদ ও স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, ১৭৪ আরোহী বহনে সক্ষম বিমানটিতে ১৪৪ জন যাত্রী ও ৬ জন ক্রু ছিল।

ফ্রান্সের রাষ্ট্রপ্রধান ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ বলেছেন, ‘কী কারণে দুর্ঘটনা ঘটেছে তা পরিষ্কার নয়। তবে আরোহীদের কেউ জীবিত নেই সেই বিষয়টি আমরা মাথায় রাখছি।’

তিনি জানান, দুর্ঘটনার স্থানটি বেশ দুর্গম।

ফরাসি প্রধানমন্ত্রী ম্যানুয়েল ভালস জানান, দুর্ঘটনাস্থলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নার্দ সেজানহুকে পাঠানো হয়েছে।

ফরাসি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, উড্ডয়নের ৫২ মিনিটের মাথায় গ্রিনিচ মান সময় সকাল ৯টা ৪৭ মিনিটে বিমান থেকে জরুরি সঙ্কেত পাঠানো হয়। আল্পসের সাড়ে ছয় হাজার ফিট উচ্চতায় বিমানটির ধ্বংসাবশেষ চিহিৃত করা হয়েছে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র পিয়েরে হেনরি ব্রান্ডেট জানিয়েছেন, বিমানের ধ্বংসাবশেষ যেখানে রয়েছে সে পথটি ‘অনেক দীর্ঘ’ ও‘প্রচণ্ড কষ্টকর’। তিনি বলেন, দূরত্বের কারণে সেখানে উদ্ধার অভিযান চালানো বেশ সময়ের ব্যাপার ও কষ্টসাধ্য।

ফরাসি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, বিমানটি তার নির্ধারিত উচ্চতায় ওঠার মাত্র চার মিনিটের মাথায় নিচে নেমে আসে।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বিমানটি স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক নিচু দিয়ে উড়ছিল।

 

শনিবারের চিঠি / আটলান্টা / ২৫ মার্চ ২০১৫

 

 

Facebook Comments Box

বাংলাদেশ সময়: ৮:৫১ পূর্বাহ্ণ | বুধবার, ২৫ মার্চ ২০১৫

https://thesaturdaynews.com |

Development by: webnewsdesign.com